Home / এক্সক্লুসিভ / স”হবাস এর সমায় মে”য়েরা হ”ঠাৎ কেঁ”দে ওঠে জেনে নিন কারন

স”হবাস এর সমায় মে”য়েরা হ”ঠাৎ কেঁ”দে ওঠে জেনে নিন কারন

ঘ’নিষ্ঠ হওয়ার স’ময় – চি’কিৎ’সা বি’জ্ঞানের ভাষায় একে ‘পোস্টু কইটাল ডিসফোরিয়া বা পিসিডি’ বলা হয়। স,হবাসের প’র চোখে পানি, বি’ষণ্ন তাবোধ, আ’গ্রাসী মনোভাবের শি,কার ব’লে মনে হওয়া এবং উৎকণ্ঠা বোধ হওয়া এ স’মস্যার লক্ষণ।এ গবেষণায় আমেরিকায় ২৩০ জ’ন না’রীর ও’প’র জ,রিপ চা’লানো হয়। এদের ৫ শতাংশ জা’নান, বিগত মা’সগুলোতে বেশ কয়েকবার তাদের এ স’মস্যা হয়েছে।

২০১১ সালে ‘ই’ন্টারন্যাশনাল জার্নাল অব সে,ক্সুয়াল হে,লথ’-এ প্রকাশিত প্র’তিবেদনে বলা হয়, এক-তৃ,তীয়াংশ না’রী তৃপ্তিদায়ক যৌ,নকর্মের প’রও বি’ষ,ণ্নতায় ভোগেন। তারা কাঁ,ন্নার পেছনে বেশ সশয় ব্যয় করেন এমনকি স,হবাসের আ’গেও অনেক না’রী আ,বেগাপ্লুত হয়ে পড়েন২৮ বছরৃ ব’য়সী লরা নামের এক না,রী জা’নান যে, স,ঙ্গী তাকে জ,ড়িয়ে ধরার প’রই তিনি কেঁ,দে ফে’লেছিলেন।

অনেক স’ময় এ অবস্থা কয়েক ঘ,ণ্টা ধ’রে স্থা,য়ী হতে পারে। অনেক স’ময় স,হবাসের প’র রা’তে ঘুমিয়ে সকালে ওঠার প’রও মনে হয়, মনটা খারাপ হয়ে আ’ছে।২৫ বছর ব’য়সী সোফি জা’নান, স,হবাসের প’র প্রা’য়ই আমি কাঁ,দি। আমা’র কাছে মনে হয় হয়তো এ অবস্থা কা’টিয়ে ওঠার জ’ন্যে দে’হে অনেক বেশি হর,মোনের প্র,য়োজ’ন।

বি’শেষজ্ঞ ড. পেট্রা বয়নটন জা’নান যৌ,নতার প’র দুঃ,খবোধ হওয়া বা বি,ষণ্ন হয়ে প,ড়ার বি’ষয়টি অনেকগুলো কারণের ও’প’র নির্ভর করতে পারে। নানা ধরনের আ,বেগ নানাভাবে প্র’ভাবশালী হয়ে ওঠে।এমনকি ছে,লেরাও কাঁ,দতে পারেন। ৩১ বছর ব’য়সী চার্লি জা’নান, জীবনে প্রথমবার স,হবাস করার প’র প্রচুর কেঁ,,দেছি।

আমি ভ’য় পেয়ে গিয়েছিলাম।স’ম্প’র্ক বি’ষয়ক বি’শেষজ্ঞ জেন ডে ব’লেন, নানা স্বা,দ ও গন্ধ হয়ে জীবনে আসে স,হবাস। খুব আ,বে’গের স’ঙ্গে, ধীর লয়ে ও গভীর অ,নুভূতি নিয়ে যৌ,নতার প’র এমনিতেই মনটা ভার হয়ে থাকতে পারে।

আরো পড়ুন,সড়ক দুর্ঘ’টনা নিয়ে বিভিন্ন পক্ষকে সাবধান করে দিলেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পু’লিশ ক’মিশনার মোহা. শফিকুল ইস’লাম।তিনি ব’লেন,আমাদের স’ন্তা’নরা আরেকবার রাস্তায় নামলে পু’লিশ, গাড়ি মালিক-শ্র’মিক কারো পিঠে চামড়া থাকবে না। তাই সাবধান হোন। আ’ই’ন মেনে চলুন।”বৃহস্পতিবার সকালে রা’জারবাগ পু’লিশ লাই’নে ডিএমপির ‘ট্রাফিক সচেতনতামূলক পক্ষ ২০১৯’ এর উদ্বোধন হয়।

সেখানে এই ক’থা ব’লেন অ’নুষ্ঠানের সভাপতি ডিএমপি ক’মিশনার।অ’নুষ্ঠানে প্রধান অ’তিথি স্ব’রাষ্ট্রম’ন্ত্রী আ’সাদুজ্জামা’ন খান ছা’ড়াও বি’শেষ অ’তিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ পু’লিশের ই’ন্সপেক্টর জেনারেল ড. মোহাম্ম’দ জাবেদ পা’টোয়ারী।

এস’ময় সড়ক প’রিবহ’ন ও বাস’মালিক স’মিতির মহাস’চিব খন্দকার এনায়েত উল্লাহও উপস্থিত ছিলেন।ডিএমপির এই ট্রাফিক সচেনতামূলক পক্ষ ২১ নভেম্বর থেকে ৫ ডিসেম্বর প’র্যন্ত চলবে ব’লে জানিয়েছেন ডিএমপির অ’তিরিক্ত ক’মিশনার মফিজ উদ্দিন আ’হমেদ।ট্রাফিক সচেতনতা পক্ষ উদ্বোধন উপলক্ষে রা’জারবাগ পু’লিশ লাই’ন্স মাঠে পাঁচ হাজার হা’ইড্রোলিক হর্ন ধ্বংস করা হয়।

গ্যাসের স’মস্যা দূর করবে এই চা

বেশির ভাগ মা’নুষ যখন তখন পেটে গ্যাস জমে যাওয়ার স’মস্যায় ভোগেন। আর এই গ্যাস জমে গেলে পেট ভার লাগতে শুরু করে। এরপ’র পেটে ব্যথা, হাঁশফাঁশ অবস্থা, বমি বমি ভাব। গ্যাস দূর না হওয়া প’র্যন্ত মেলে না স্ব’স্তি।

 

গ্যাসের এই স’মস্যা থেকে মুক্তি পেতে ওষুধের সাহায্য নেন প্রা’য় স’বাই। তবে স’ব ওষুধেরই কিছু না কিছু পা’র্শ্বপ্র’তিক্রিয়া রয়েছে। তাই এই স’মস্যা থেকে মুক্তি পেতে বেছে নিতে পারেন এই চা। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক যেস’ব চা খেলে অ্যাসিডিটির স’মস্যা দূর হবে সে স’ম্প’র্কে-

আ’দা চা
পেটে’র যেকো’নো স’মস্যায় আ’দার ভূ’মিকা বেশ গু’রুত্বপূর্ণ। অনেকে কাঁচা আ’দাও চিবি’য়ে খেয়ে থাকেন। আ’দা চা খাওয়ার প্রচলন আমাদের মধ্যে যথেষ্ট রয়েছে। শুধু ঠাণ্ডা-কাশিতে নয়, আ’দা চা গ্যাস্ট্রিকের স’মস্যা দূর করার জ’ন্যও উপকারী।

হলুদ চা
হজমসং’ক্রান্ত যেকো’নো স’মস্যায়ই হলুদ চা অত্যন্ত উপকারী। এর মধ্যে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বদহজম ও পেট ফাঁপায় মুক্তি দিতে স’হায়ক। হলুদ চায়ের মধ্যে এক চিমটে গোলম’রিচ গুঁড়া যোগ করে নিলে আরো বেশি উপকার পাবেন।

পুদিনা চা
আমাদের পেট ঠাণ্ডা রাখতে পুদিনা পাতা বেশ স’হায়ক। যেকো’নো রকম হজমের স’মস্যায় পুদিনা পাতা অত্যন্ত উপকারী। পুদিনা চা পেট থেকে গ্যাস বের করে দিয়ে স্ব’স্তি দেয়।

ক্যামোমি’ল চা
গ্যাস, বদহজম, ডায়েরিয়া, বমিভাবের জ’ন্য দীর্ঘদিন ধ’রেই আয়ুর্বেদিক ওষুধে ক্যামোমি’লের ব্যবহার রয়েছে। এই ফুলের রস পেটব্যাথা ও হজমের স’মস্যায় অত্যন্ত উপকারী। চায়ের মধ্যে ক্যামোমি’ল মেশালে তা পেট থেকে অ’তিরিক্ত গ্যাস বের করে দেবে।

মৌরি চা
হজমক্ষ’মতা ভা’লো রাখতে মৌরির ব্যবহার বেশ পুরোনো। এ’কারই অনেকে খাওয়ার প’রে মৌরি চিবি’য়ে খান। কারণ মৌরির মধ্যে থাকা উপাদান হজমে স’হায়ক। মৌরি চা পেটে জমে থাকা গ্যাস বের করে দিতে সাহায্য করে।

Check Also

২৩ বছরের সংসার, ভালোবাসা দিবসে কিডনি দিয়ে স্ত্রীর প্রাণ বাঁচালেন স্বামী

ভালোবাসার জন্যে মানুষ কি না করে? এবার স্ত্রীকে বাঁচাতে নিজের কিডনি দিয়ে দিলেন স্বামী। ভ্যালেন্টাইনস …