Home / এক্সক্লুসিভ / আসুন জেনে নেয় ১৬ টি কুফরি বাক্য যা আমরা নিয়মিত বলে থাকি

আসুন জেনে নেয় ১৬ টি কুফরি বাক্য যা আমরা নিয়মিত বলে থাকি

ধ’র্ম যার যার উৎসব সবার। শারদীয় দুর্গাপূজার সময় এলেই কোন কোন নেতার মুখ থেকে এ বাক্যটি উচ্চারিত হয়। আসলে এটা একটি কু’ফরি বাক্য। যারা বলছেন, আমি মনে করি তারা না বুঝেই বলছেন।

কেননা যে উৎসবকে কেন্দ্র করে এ কথাটি বলা হচ্ছে সেটা হচ্ছে দুর্গাপূ’জার উৎসব। নিছক কোন উৎসব নয়। হিন্দু সম্প্রদায় অনেকটা উৎসবমুখর পরিবেশে তাদের দেবী দূ’র্গার পূজা পালন করে থাকে বলেই এটি উৎসব।

অন্যথায় মূলত এটি একটি পূজা। কোন মুসলমান দুর্গাকে দেবী মনে করে না, কোন মুসলমান এক আল্লাহ ছাড়া অন্য কারো পূজা করে না। অথচ দূর্গা পূজার উৎসবে শরিক হওয়া মানে দুর্গার পূজাকে স্বীকৃতি দেয়া এবং দূর্গা পূজায় অংশগ্রহণ করা। সুতরাং দুর্গার পূজাকে কেন্দ্র করে যে উৎসব হয় সে উৎসব কখনোই মুসলমানদের উৎসব হতে পারে না।

১৬ টি কু’ফরি বাক্য যা আমরা নিয়মিত বলে থাকি।

১. আল্লাহর সাথে হি’ল্লাও লাগে।

২. তোর মুখে ফুল চন্দন পড়ুক। ( ফুল চন্দন হি’ন্দুদের পু’জা করার সামগ্রী)

৩. কস্ট করলে কেস্ট মেলে (কেস্ট হি’ন্দু দেবি’র নাম, তাকে পা’বার জণ্য ক’স্ট করছেন?)

৪. মহভারত কি অশু’দ্ধ হয়ে গেল? (মহাভারত একটি উপন্যাস, যা সবসময় অশু’দ্ধ)

৫। মোল্লার দৌড় মসজিদ পর্যন্ত। (এটি ইসলামের নামে ক’টূউ’ক্তি করা)

৬। লক্ষী ছেলে, লক্ষী মেয়ে, লক্ষী স্ত্রী বলা। (হি’ন্দুদের দেব-দেবির নাম লক্ষী। তাই ইসলামে এটি হা’রাম)

৭। কোন ঔষধকে জীবন রক্ষকারী বলা। (জন্ম- মৃ’ত্য একমাত্র আল্লাহর হাতে)

৮। দুনিয়াতে কাউকে শাহেনসা বলা। ( এর অর্থ রাজাদের রাজাধীকার)

৯। নির্মল চরিত্র বোঝাতে ধোয়া তুলশি পাতা বলা (হিন্দুদের পুজাতেে তুুুলশি পাতা ব্যবহার করা হয়। তারা তুলশি পাতাকে পবিত্র মনে করেে।

১০। ইয়া খাজাবাবা, ইয়া গাঊস, ইয়া কুতুব ইত্যাদি বলা। (এটি শি’র্ক, ইসলামের সবচেয়ে বড় পা’প)

১১। ইয়া আলি, ইয়া রাসুল (সাঃ) বলে ডাকা এবং সাহায্য প্রার্থনা করা (আল্লাহ ছাড়া পৃথিবীর অন্য কারো কাছে সাহায্য চাওয়া শি’র্ক)

১২। বিসমিল্লায় গলদ বলা। (এটি সরাসরি কু’ফরি)

১৩। মৃ’ত্যুর সাথে পাঞ্জালড়া বলা। (কু’ফরি বাক্য, সা’বধান। )

১৪। মধ্যযুগি ব’র্বর’তা বলা। (মধ্যযুগ ইসলামের সর্ণযুগ)

১৫। মন ঠিক থাকলে পর্দা লাগে না। ( ইসলাম ধং’সকা’রী মতবাদ)

১৬। নামাজ না পড়লে ঈমান ঠিক আছে বলা। (ইসলাম থেকে বের করার মূলনিতী)

এই গুলি অজ্ঞতার কারনে হয়ে থাকে। হে মুসলিম উম্মাহ আসুন আমরা নিজে অতপর নিজের পরিবারকে সচেতন করি, তাদের মাঝে এই গুলি প্রচার করি, আর কত দিন এই অজ্ঞতায় পড়ে থাকবো? অাল্লাহ অামাদের সঠিক বোঝার তৌফিক দান করুক! অামিন!🤲 “সংগৃহীত”

Check Also

নতুন বিয়ে, ৭ দিনে ৪ বার খাট ভা’ঙল নব দ’ম্পতি!

ক’রোনার প্র’ভাবে সবাই জর্জরিত। সারা বিশ্বে ম’হামা’রীর আ’কার ধারন ক’রেছে ক’রোনা ভাই’রাস। ক’রোনা ভাই’রাসের মা’রণ …