Home / এক্সক্লুসিভ / প্রেমিকের সঙ্গে আ’পত্তিকর অবস্থায় চাচিকে দেখে ফেলায় শিশুকে খু’ন

প্রেমিকের সঙ্গে আ’পত্তিকর অবস্থায় চাচিকে দেখে ফেলায় শিশুকে খু’ন

সিলেটের বিয়ানীবাজারে আপন চাচী ও তার প’রকীয়া প্রে’মিকের হাতে নি’র্মমভাবে খু’ন হয়েছে ৩ বছরের ব’য়সী শি’শু সাহেল আহম’দ সোহেল। চাচীর অ’নৈতিক স’ম্পর্ক দেখে ফেলার অ’পরাধে খু’নের শি’কার হয় শি’শুটি।

রোববার সকালে উপজে’লার কুড়ারবাজার ইউনিয়নের উত্তর আকাখাজানা গ্রামে এ ঘ’টনা ঘটে। নি’হত শি’শু সাহেল আহম’দ সাহেল একই এলাকার খছরু মিয়ার ছেলে।

পু’লিশ ঘ’টনায় জ’ড়িত থাকার দায়ে ঘা’তক চাচী সুরমা বেগম (৩৮) ও তার প’রকিয়া প্রে’মিক নাহিদুল ইসলাম (২৬) কে গ্রে’ফতার করে আজ সোমবার (০৮ জুন) আ’দালতে প্রেরণ করেছে। পু’লিশি জি’জ্ঞাসাবাদে অ’নৈতিক স’ম্পর্ক দেখে ফেলায় চাচী ও তার পরকিয়া প্রে’মিক শি’শু সায়েলকে খু’নের বি’ষয়ে স্বী’কারোক্তিমূ’লক জবানব’ন্দি দিয়েছে।

সুরমা বেগম খছরু মিয়ার সহোদর রুনু মিয়ার স্ত্রী এবং তার পরকিয়া প্রে’মিক নাহিদুল ইসলাম উপজে’লার চারখাই ইউনিয়নের মধুরচক এলাকার কামাল মিয়ার ছেলে হলেও সে উত্তর আকাখাজানায় তার মামার বাড়িতে বসবাস করতো।

গ্রেফতাকৃত আ’সামিরা পু’লিশের কাছে স্বী’কারোক্তিতে জানায়, রোববার সকাল ৬টার দিকে ভি’কটিম সায়েল ও তার ভাই আরিফ আম কুড়ানোর জন্য চাচী সুরমা বেগমের বসতঘরের সামনে যায়। আম কুড়ানো শেষে সে চাচীর বসতঘরের ভিতরে প্রবেশ করলে নাহিদুল ও সুরমা বেগমের অ’নৈতিক মেলামেশা দেখে চি’ৎকার শুরু করে। তখন নাহিদুলের নির্দেশে চাচী সুরমা বেগম গাছের ডাল দিয়ে ওই শি’শুর মাথায় আ’ঘাত করলে সে অজ্ঞান হয়ে মাঠিতে লু’টিয়ে পড়ে। তখন চাচী ও তার প্রে’মিক ওই শি’শুর নাক-মুখ চে’পে ধরে শ্বা’সরো’ধ করে গোসলখানায় থাকা একটি প্লাষ্টিকের পানির ড্রামে ঢুকিয়ে কম্বল দিয়ে ঢেকে রাখে।

থানা পু’লিশ জানায়, এ ঘ’টনার পর দিনভর সায়েলকে বিভিন্ন জায়গায় খোঁজা হলেও কোথাও তাকে পাওয়া যায়নি। মসজিদের মাইকেও তার খোঁজে প্রচারণা চা’লানো হয়। এ সময় চাচী সুরমা বেগম তার বসতঘরের দরজা-জানালা বন্ধ রাখাসহ র’হস্যজনক আচরণ করতে থাকেন। এতে নি’হত শি’শুর পিতাসহ এলাকার লোকজনের স’ন্দে’হ হলে তারা চাচীর বসতঘরে প্রবেশ করে তল্লা’শি শুরু করেন।

একপর্যায়ে রাত ৮টার দিকে সুরমা বেগমের গোসলখানায় রাখা পানির ড্রামের ভিতর কম্বল দিয়ে মোড়ানো শি’শু সায়েলের নিথর দে’হ পাওয়া যায়। এ ঘ’টনায় নি’হত সায়েলের পিতা খসরু মিয়া বাদি হয়ে ৩ জনের নাম উল্লেখ করে বিয়ানীবাজার থানায় মা’মলা দা’য়ের করেছেন।

এ ব্যাপারে বিয়ানীবাজার থানার অফিসার ই’নচার্জ (ওসি) অবণী শংকর কর জানান, খবর পেয়ে আমরা ঘ’টনাস্থলে ছুটে যাই এবং শিশির লা’শ উ’দ্ধার করে ম’য়নাত’দন্তের জন্য ম’র্গে প্রেরণ করি।

তিনি বলেন, শি’শুর পিতা মা’মলা দা’য়েরের পর আমরা ঘ’টনাস্থল থেকে আ’টক নাহিদুল ইসলাম ও সুরমা বেগমকে গ্রে’ফতার দেখিয়ে আ’দালতে প্রেরণ করেছি।

Check Also

নতুন বিয়ে, ৭ দিনে ৪ বার খাট ভা’ঙল নব দ’ম্পতি!

ক’রোনার প্র’ভাবে সবাই জর্জরিত। সারা বিশ্বে ম’হামা’রীর আ’কার ধারন ক’রেছে ক’রোনা ভাই’রাস। ক’রোনা ভাই’রাসের মা’রণ …