Home / এক্সক্লুসিভ / তিনটে লক্ষণ যা দেখে বুঝবেন আপনার স্ত্রী পরকীয়ায় লিপ্ত

তিনটে লক্ষণ যা দেখে বুঝবেন আপনার স্ত্রী পরকীয়ায় লিপ্ত

অনেক সময়েই সম্পর্কে সম’স্যার আসল কারণটা খুঁজে বের করা অ’সম্ভব মনে হয়। সেই কারণেই আমরা বেশ কিছু কারণ খুঁজে বের করেছি যা দেখলেই আপনি বুঝবেন সঙ্গীর সঙ্গে আপনার সম্পর্কটা সুস্থ- স্বাভাবিক নাকি জ’টিল? সম্পর্কের সমস্যার কারণ খুঁজে বের করা সহজ নয়। কোনও কোনও সময় একটা ভু’ল সম্পর্কে আ’টকে থাকাই বি’শ্বের সবচেয়ে বড় সম’স্যা হতে পারে।

আমাদের সম্পর্ক, বিশেষত প্রেমের ক্ষেত্রে সঙ্গীর আ’চরণ আমাদের মা’নসিকভাবে অ’বসন্ন করতে পারে এবং বিভিন্ন কাজে প্র’ভাব ফেলতে পারে। তিলে তি’লে গড়ে তোলা একটা সম্পর্কে যখন সম’স্যা দেখা দেয় তখন আমাদের পারিপার্শ্বিক পরিস্থিতির সঙ্গে খা’প খা’ইয়ে নিতেও বেশ সম’স্যা হয়।

কিন্তু অনেক সময়েই সম্পর্কে সম’স্যার আসল কারণটা খুঁজে বের করা অ’সম্ভব মনে হয়। সেই কারণেই আমরা বেশ কিছু কারণ খুঁজে বের করেছি যা দেখলেই আপনি বুঝবেন সঙ্গীর সঙ্গে আপনার সম্পর্কটা সুস্থ- স্বাভাবিক নাকি জটি’ল?

সম্পর্কটা সুস্থ-স্বাভাবিক নয়, তা বোঝার কয়েকটা লক্ষণ এখানে তুলে ধরা হলঃ 1. আপনার মনের কথা আপনি বলেন না বা বলতে পারেন না আপনার মনের কথা বলার থেকে বারবার যদি আপনাকে পিছ’পা হতে হয় তবে বুঝবেন নিশ্চয়ই কোনও গল’দ আছে।

সম্পর্কের ক্ষেত্রে আপনার সঙ্গী আপনার নিরাপদ আশ্রয় হওয়া উচিত, যেখানে আপনি নি’র্দ্বিধা’য় মনের কথা বলতে পারেন। কিন্তু আপনাকে সে বুঝবে না এই ভেবে যদি আপনি পিছিয়ে আসেন

অথবা আপনার কথায় ঝ’গড়া অ’শান্তি হবে এই ভ’য়ে যদি আপনি সব সময় ব্যতিব্য’স্ত হয়ে থাকেন তবে আমরা আপনাকে বলবো আপনি ভু’ল মানুষের সঙ্গে রয়েছেন। প্রত্যেকটা মজবুত সম্পর্কের ভিত হল বিশ্বাস।

2. আপনি বোর হয়ে গেছেন আপনি কি আপনার সঙ্গীর সঙ্গে থাকতে বোর হয়ে যান? সে আশপাশে থাকলেই আপনার বির’ক্তি লাগে? তার সঙ্গে সময় কাটা’নোর থেকে আপনার একা থাকতে ভাললাগে? এমন হলে আপনাদের একসঙ্গে বসে কথা বলে এই বিষয়ে মী’মাংসা করা প্রয়োজন।

আর আপনার যদি নিজের সঙ্গীর সঙ্গে কথা বলার ইচ্ছাটুকুও না থাকে তবে আপনার সত্যিই এই বিষয়টা নিয়ে ভেবে দেখা প্রয়োজন। প্রয়োজনে সম্পর্কটা শেষ করে দিন। কারণ, জীবনটা অনেক বড়। চি’রকাল তো আর আপনি বোর হতে পারেন না!

3. প্রতি মুহূর্তে আপনি নিজেকে প্রশ্ন করে চলেছেন আপনি জীবনের এমন একটা পর্যায় চলে গেছেন যেখানে আপনি নিজের প্রতিটা কাজের জন্য নিজেকে প্রশ্ন করেন। অবস্থাটা এমনই যখন আপনি সম্পর্কের প্রতিটা সম’স্যার জন্য নিজেকে দো’ষারো’প করেন। এক্ষেত্রে সম’স্যা অত্যন্ত গুরুতর। আর তাই আপনার উচিত এবার সময় নিয়ে ভেবে দেখে সম্পর্কটা শেষ করা।

Check Also

মাংসে লবন কম হয়েছে বলায়, মেয়ের জামাইকে পে’টালেন শ্বাশুড়ি

বাংলা সাহিত্যে জামাই ষষ্ঠীর তেমন রমরমা দেখা না গেলেও, অস্বীকার করার উপায় নেই, বাঙালির সংস্কৃতিতে …