Home / এক্সক্লুসিভ / সহজে রোগা’ক্রান্ত হওয়া থেকে বাঁচায় পেয়ারা

সহজে রোগা’ক্রান্ত হওয়া থেকে বাঁচায় পেয়ারা

শরীর সুস্থ রাখতে পেয়ারার বিকল্প হয় না। পেয়ারায় থাকা ভিটামিন সি, লাইকোপেন,ম্যাগনেশিয়াম শরীরের প্রতিটি অংশকে সুস্থ এবং সুন্দর রাখতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। এছাড়া এতে রয়েছে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিকারী অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। পেয়ারায় বিদ্যমান এই সকল উপাদান আমাদের শরীর সুস্থ রাখার পাশাপাশি সহ’জে রোগাক্রান্ত হওয়ার হাত থেকেও বাঁ’চায়।

দেশী ফল পেয়ারার রয়েছে এমন অনেক উপকারি গুণ।

সংক্রমণের আশ’ঙ্কা কমায়: এই ফলটিতে থাকা অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল এজেন্ট সংক্রমণের আশ’ঙ্কা কমায়, সেই সঙ্গে শরীরের শক্তি বৃদ্ধি করে। প্রতিদিন একটা করে পেয়ারা খাওয়া শুরু করলে দেহে পটাশিয়ামের মাত্রা বৃদ্ধি পায়। এর প্রভাবে র’ক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে আসে। দৃষ্টিশক্তির উন্নতি ঘটায়: ভিটামিন এ পর্যাপ্ত পরিমাণে থাকায় নিয়মিত পেয়ারা খেলে দৃষ্টিশক্তির উন্নতি ঘটে। ছানি পড়া এবং গ্লুকোমা’র মতো রোগ দূরে থাকে।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়: পেয়ারায় রয়েছে প্রচুর মাত্রায় ভিটামিন সি, যা শরীরের রোগ প্রতিরোধী ব্যবস্থাকে মজবুত করে তোলে। ফলে রোগ ধারে কাছে ঘেঁষতে পারে না। নানা ধরনের সংক্রমণের হাত থেকে বাঁ’চাতেও ভিটামিন সি বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে।

মস্তিষ্কের ক্ষমতা বৃদ্ধি করে: পেয়ারায় বিদ্যমান ভিটামিন বি৩ এবং বি৬ মস্তিষ্কে অক্সিজেন সমৃদ্ধ র’ক্তের সরবরাহ বাড়িয়ে দেয়। ফলে স্বাভাবিকভাবেই স্মৃ’তিশক্তি, বুদ্ধি এবং মনোযোগের উন্নতি ঘটে।

ক্যান্সারের আশ’ঙ্কা কমায়: পেয়ারায় থাকা লাইকোপেন, কুয়েরসেটিন, ভিটামিন সি এবং পলিফেনল শরীরে জমতে থাকা ক্ষতিকর ট’ক্সিক উপাদান বের করে দেয়। ফলে ক্যান্সার কোষ জন্মানোর আশ’ঙ্কা অনেক কমে যায়।

কোষ্ঠকাঠিন্য কমায়: শরীরে ফাইবারের পরিমাণ কম থাকলে পেটের রোগ হয়। ফলের মধ্যে পেয়ারাতে রয়েছে সব চাইতে বেশি মাত্রায় ফাইবার। এজন্য পেয়ারা খেলে কোষ্ঠকাঠিন্য সমস্যাও কমে যায়।

Check Also

আপনার স্ত্রী বা প্রেমিকা প্রতারনা করছে? কিভাবে বুঝবেন

স্ত্রী বা প্রেমিকা (Lover) প্রতারনা করছে? কিভাবে বুঝবেন, জেনে নিন উপায়… এক এক ক্ষেত্রে মেয়েদের …