Home / এক্সক্লুসিভ / ছাত্রীর সঙ্গে আ’পত্তিকর কাজ, ক’নডম গিলে ফেলার চেষ্টা

ছাত্রীর সঙ্গে আ’পত্তিকর কাজ, ক’নডম গিলে ফেলার চেষ্টা

জামালপুরে ট্রেনে ছাত্রীর সঙ্গে আ’প’ত্তিকর অবস্থায় কলেজের এক অ’ধ্যক্ষকে আ’টক করেছে জিআরপি পুলিশ। রোববার দুপুরে আন্তঃনগর তিস্তা এক্সপ্রেস ট্রেনের একটি কেবিন থেকে ইসলামপুর জে জে কে এম গালর্স হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুস সালাম চৌধুরীকে আপ’ত্তিকর অবস্থায় আ’টক করে দেওয়ানগঞ্জ জিআরপি পু’লিশ ফাঁড়ি। আ’টক অধ্যক্ষ আব্দুস সালাম জামালপুর শহরের বেলটিয়া এলাকার মৃ’ত সিরাজুল হকের ছেলে।

জিআরপি পু’লিশ সূত্রে জানা যায়, রবিবার ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা দেওয়ানগঞ্জগামী আন্তঃনগর তিস্তা এক্সপ্রেস ট্রেনের ঘ নাম্বার কোচের একটি কেবিন বুকিং করে কলেজের প্রাক্তন এক ছাত্রীকে (২৭) নিয়ে ভ্রমণ করছিলেন অধ্যক্ষ আব্দুস সালাম চৌধুরী (৫০)। আন্তঃনগর তিস্তা এক্সপ্রেস

ট্রেনটি মেলা’ন্দহ স্টেশন অতিক্রম করার পর মেয়েসহ ট্রেনের ওই কেবিনটি ভেতর থেকে বন্ধ থাকায় যা’ত্রীদের সন্দেহ হয়। কেবিনের বাইরে থেকে ডা’কাডাকির পরও দরজা না খোলায় ট্রেনে কর্তব্যরত জিআরপি পু’লিশকে বিষয়টি জানায় যাত্রীরা। পরে জিআরপি পুলিশ ওই কেবিনে গিয়ে অধ্যক্ষ আব্দুস সালাম চৌধুরীকে ওই ছাত্রীর সঙ্গে আপ’ত্তিকর অ’বস্থায় আ’টক করে।

এ সময় আব্দুস সালামের ব্যবহৃত ক’নড’মটি গিলে ফেলার চেষ্টা করেন। পরে পু’লিশ কনস্টেবল আব্দুল মান্নান ওই অ’ধ্যক্ষের মুখ থেকে ক’নড’মটি উ’দ্ধার করেন এবং তাদের দুজনকে আ’টক করে দেওয়ানগঞ্জ রেলওয়ে পু’লিশ ফাঁড়িতে নিয়ে যান। পরবর্তীতে আট’ক দুজনকে আন্তঃনগর তিস্তা ট্রেনেই জামালপুর জিআরপি থানায় নিয়ে আসা হয়। আ’টক ছাত্রীর বাড়ি জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলার পৌরসভাধীন গাওকুড়া এলাকায়।

জামালপুর রেলওয়ে থানা পু’লিশের ভা’রপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তাপস চন্দ্র পন্ডিত ঘ’টনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, ট্রেনে অ’নৈতিককাজে লি’প্ত থেকে জনগণের মাঝে অ’স্বস্তিকর পরিবেশ সৃষ্টি করার অপরা’ধে তাদের বিরু’দ্ধে আ’ইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Check Also

রাতে ঘুমানোর আগে যে পানীয় ১ গ্লাস খেলে উ’ধাও মেদ-ভুঁড়ি!

দিনে দিনে আমাদের ব্যস্ততা যেন বেড়েই চলছে। কোন অবসর নেই আমাদের জীবনে! ঠিক ব্যস্ততার সাথে …