Home / Healthy Recipe / সকালে গরম পানিতে লেবুর রস খেলে ৬ উপকার

সকালে গরম পানিতে লেবুর রস খেলে ৬ উপকার

সকালে ঘুম থেকে উঠে ব্যস্ততার কারণে নাস্তা সময়মতো খাওয়া হয়ে ওঠে না। তবে একটি খাবার রয়েছে সকালে উঠে খেলে আপনার সারাদিনের হ’জমশক্তি বাড়ানো ছাড়াও অনেক উপকার পাবেন।

একাধিক গবেষণায় দেখা গেছে, লেবুতে রয়েছে ভিটামিন ‘সি’, পটাশিয়াম, ক্যালসিয়াম, ফসফরাস, ম্যাগনেসিয়াম, যা দেহের ভেতরে পুষ্টির ঘাটতি দূর করে। লেবুর শরবত লিভা’রে উপস্থিত ক্ষতিকর ট’ক্সিক উপাদান বের করে। ফলে লিভা’রের যেকোনো ধরনের ক্ষতি হওয়ার আশ’ঙ্কা কমে যায়।

আসুন জেনে নিই সকালে গরম পানিতে লেবুর রস কেন খাবেন?

১. ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে গরম পানিতে লেবুর রস খেলে দেহের ভেতরে পিএইচ লেভেলের ভা’রসাম্য ঠিক থাকে। ফলে দেহের কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি পায়।
২. লেবু ত্বক ভালো রাখে, শরীরের অ্যান্টি-অক্সিডেন্টের চাহিদা পূরণ করে এবং কিডনির পাথরও প্রতিরোধ করে।
৩. লেবু ত্বকে ব্যবহার করতে পারেন। লেবু ব্যবহারে চেহারায় বয়সের ছাপ কমবে।

৪. প্রতিদিন সকালে হালকা গরম পানিতে কিছুটা লেবুর রস মিশিয়ে খেলে সারা দিনের হ’জমশক্তি ভালো থাকে।
৫. লেবুতে থাকা ভিটামিন ‘সি’ দেহের হরমোনকে সক্রিয় রাখে ও উচ্চর’ক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে।
৬. তবে লেবুর শরবত খেতে হলে অবশ্যই চিনি ছাড়া পান করা ভালো।লেবুর ভিটামিন ‘সি’ স্কার্ভি রোগ প্রতিরোধে সাহায্য করে।

জানা গেলো অক্সফোর্ডের করো’না ভ্যাকসিন কবে নাগাদ পাওয়া যাবে

প্রা’ণঘাতি কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন গবেষণায় অক্সফোর্ডের সাম্প্রতিক ট্রায়ালের রিপোর্ট বলছে, অন্যদের থেকে এগিয়েই গেছে ভাইরোলজিস্ট সারা গিলবার্টের টিম। প্রথম, দ্বিতীয় ট্রায়ালের পর তৃতীয় ও চূড়ান্ত পর্যায়ের ট্রায়ালের রিপোর্টও বেশ ভালো এসেছে। ব্রাজিল ও দক্ষিণ আফ্রিকাতেও চলছে অক্সফোর্ড ভ্যাকসিনের ট্রায়াল। -দ্য ওয়াল, সিএনএন, ফরচুন

ভা’রতে র সেরাম ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়াতে দাবি করেছে , সব ঠিক থাকলে জুলাই মাসের প্রথমেই ওই অ ক্স ফোর্ড ভ্যাকসিন চলে আসতে পারে বাজারে। এটাই হচ্ছে বিশ্বের বৃহত্তম ভ্যাকসিন তৈরি কারখানা । এদিকে আরব আমিরাত ও চীনের যৌথভাবে তৈরি একটি ভ্যাক্সিনের ৩য় পর্যায়ের ট্রায়াল শুরু হয়েছে। এই গবেষণা করছে আমিরাত ভিত্তিক কৃত্রিম বৃদ্ধিমত্তা কোস্পানি জি৪২ এবং চীনা কোম্পানি সিনোফার্ম গ্রুপ। প্রথম দুই ট্রায়ালে সাফল্য পেয়েছে এই ভ্যাকসিনও।

অক্সফোর্ড ও অক্সফোর্ডের অধীনস্থ জেন্নার ইউনিভা’র্সিটির গবেষকদের ডিজাইন করা ভ্যাকসিন ক্যানডিডেটের চূড়ান্ত পর্যায়ের ট্রায়াল চলছে যু’ক্তরাজ্যে। ডিএনএ ভ্যাকসিনের প্রথম হিউম্যান ট্রায়াল শুরু হয়েছিল এপ্রিলে । এই ভ্যাকসিন ট্রায়ালের দায়িত্বে ছিলেন , ভাইরোলজিস্ট সারাহ গিলবার্ট , অধ্যাপক অ্যান্ড্রু পোলার্ড , টেরেসা লাম্বে , ডক্টর স্যান্ডি ডগলাস ও অধ্যাপক অ্যাড্রিয়ান হিল এবং জেন্নার ইনস্টিটিউটের গবেষকরা ।