Home / Diet and Exercise / স্ত্রী‌ যৌ’ন তৃ’প্তি পে‌য়ে‌ছে কিনা কিভা‌বে বুঝ‌বেন?

স্ত্রী‌ যৌ’ন তৃ’প্তি পে‌য়ে‌ছে কিনা কিভা‌বে বুঝ‌বেন?

অ‌নেক সময় না’রীর যৌ’ন তৃ’প্তির কিছু লক্ষণ ধরা প‌ড়ে। যা জানা থাক‌লে আপনার যৌ’ন জীব‌নে বাড়‌তি সুখ ব‌য়ে আন‌বে। আপ‌নি যখন যৌ’ন মি’লন ক‌রে প্র’শা‌ন্তি লাভ ক‌রেন তখন আপনার স্ত্রী যৌ’ন প্র’শা‌ন্তি লাভ ক‌রে‌ছে কিনা তা জানা কর্তব্য। য‌দিও আ’নন্দ বল‌লে সে সহ‌জে মুখ থে‌কে বের কর‌বে না।

এজন্য স্ত্রী যৌ’ন মজা পায় কিনা তা নি‌জে‌কেই বুঝ‌তে হ‌বে। যৌ’ন মিল‌নে না’রী যৌ’ন লাভ করলে তার মধ্যে বেশ কিছু লক্ষণ প্রকাশ পায় তা জে‌নে নিন : ১। দে’হ নু’ইয়ে পড়ে। ২। না’রীর সারা দেহ বি’ছানায় লে’লি‌য়ে দেয়।

৩। পু’রুষকে জো’র করে বু’কে চে’পে ধরে রাখতে চায়। ৪। আবেশে চোখ বুজে থাকে। ৫। যৌ’ন প্রশা‌ন্তির পূর্ণ আ‌বে‌গে স্বা’মী‌কে গ’ভীরভা‌বে চু‌’মো দি‌বে। ৫। না’রীর সারা দেহে পুনঃপুনঃ শি’হরণ হতে থাকে। ৬। অনেকে পূর্ণ তৃ’প্তির আবে‌শে স্বা’মী‌কে ভা‌লোবাসার কথা ব‌লে। ৭। ধীরে ধীরে গোঁ গোঁ বা প্রা’ণীর অ’নুরূপ শব্দ বের হ’তে পারে।

৮। দ্রুত হৃ’ৎস্পন্দন হতে থাকে। ৯। যো’নি থেকে র’সস্রাব নির্গত হয়। ১০। সারাটা দেহে অ’বসাদভাব চ‌লে আসে। ১১। স্বা’মীর শরী‌রে দে’হ লে’লি‌য়ে দেয়। আরো পড়ুন:নিয়মিত যৌ’ন মি’লনের ১০ উপকারিতা- স’ঙ্গী বা স’ঙ্গিনীর সঙ্গে ভালবাসার একান্ত সময় কা’টাতে চাইছেন? এগিয়ে যান। কারণ নিয়মিত যৌ’নমি’লন বা স’হবা’স মা’নসিক শান্তির সঙ্গেই আপনার ক্লান্তি কা’টিয়ে দেবে, ক্যালরি কমাবে, আরামের ঘুমও উপহার দেবে।

এক কথায় শ’রীরকে করে তুলবে সুস্থ, ঝরঝরে। নিয়মিত স’হবা’সের দশটি উপকারিতা- ১) সপ্তাহে দু`দিন যৌ’নমি’লন পু’রুষদের হা’র্ট অ্যা’টাকের সম্ভাবনা বহুলাংশে কমিয়ে দেয়। ২) যৌ’নমি’লন ব্যা’থা উ’পশমে অব্যর্থ। যৌ’নমি’লনের সময় অ’র্গাসমের ফলে অ’ক্সিটোসিন হ’রমোন ক্ষরণের মাত্রা পাঁচ গুণ বৃ’দ্ধি পায়। এর সঙ্গেই শ’রীর এন্ডোরফিনস ক্ষরণ করে যা ব্যা’থা কমিয়ে দিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেয়। ৩) নিয়মিত যৌ’নমি’লন শ’রীরে IgA অ্যান্টিবডির সংখ্যা বাড়িয়ে তোলে।

যা রো’গ প্রতিরোধে অপরিহার্য্য। ৪) স’হবাস ক্লান্তি দূর করে। মা’নসিক শান্তি তৈরি করে। ৫) যৌ’নমি’লনের পরবর্তী ঘুম আ’রাম ও শান্তির হয়। যা সার্বিক ভাবে শা’রীরিক সু’স্থতা বৃ’দ্ধি করে। ৬) প্রত্যেকবার যৌ’নমি’লনের ফলে অন্তত পক্ষে ৮০ ক্যালরি করে ক্ষয় হয়। ফলে ওজন ঝরানোর জন্য মোক্ষম পদ্ধতি স’হবাস। ৭) যৌ’নমি’লন চলাকালীন ডিহাইড্রোএপিএন্ড্রোস্টেরন নামের একটি হ’রমোন ক্ষরিত হয়। এই হ’রমোন রো’গ প্রতিরোধ ক্ষ’মতা বৃ’দ্ধির সঙ্গে সঙ্গে বিভিন্ন কোষ-কলাকে মেরামত করে।

ফলে আয়ু বৃ’দ্ধি পায়। ৮) স’হবাসের সময় হৃ’দস্পন্দনের হার বৃ’দ্ধি পায়। ফলে শ’রীরের বিভিন্ন অ’ঙ্গে ও কো’ষে র’ক্ত সঞ্চালনের মাত্রা বৃ’দ্ধি পায়। ৯) স’হবা’স চলাকালীন অ’তিরিক্ত টেস্টোস্টেরনের ফলে যৌ’নমি’লন তৃ’প্তি দায়ক হয় এটা সবারই জানা। কিন্তু অনেকেরই জানা নেই টে’স্টোটেরন একই সঙ্গে হাড় মজবুত করে, কো’লেস্টেরল নিয়’ন্ত্রণে রাখে, হা’র্টের সুস্থতা বজায় রাখে। ম’হিলাদের ক্ষেত্রে এই সময় অ’তিরিক্ত ইস্ট্রোজেন ক্ষরণ হা’র্টের সুস্থতা বজায় রাখে, এবং গ’ন্ধ নিয়’ন্ত্রণ করে।

১০) সপ্তাহে অন্তত তিনবার যৌ’ন মি’লন বা’হ্যিকভাবে আপনার বয়স দশ বছর কমিয়ে দিতে পারে। স’হবা’সের সময় শ’রীরে অক্সিটোসিন, এন্ডোরফিন জাতীয় মলিকিউলস ক্ষরণ বৃ’দ্ধি পায়। ক্ষ’তিগ্রস্থ ত্বক কোষ গু’লিকে মেরামত করতে পারে এই মলিকিউলসগু’লি। এছাড়া এই সময় যৌ’ন মি’লন চলাকালীন যে গ্রো’থ হরমোন ক্ষরিত হয় তা চামড়ার কুঞ্চন প্রতিরোধ করে। র’ক্ত সঞ্চালন বৃ’দ্ধি করে। ত্বকের ঔজ্বল্য বাড়ায়।

Check Also

ঘণ্টায় দুইবার মি’লন করলে কি হয়? জেনে নিন।

ঘণ্টায় দুইবার মি’লন করলে কি হয়? জেনে নিন। বি: দ্র : ই্উটিউব থেকে প্রকাশিত সকল …