Home / Uncategorized / ল’কডা’উন: প্রেমিককে বিয়ে করতে ৬০ কিলোমিটার পায়ে হেঁটে গেল তরুণী!

ল’কডা’উন: প্রেমিককে বিয়ে করতে ৬০ কিলোমিটার পায়ে হেঁটে গেল তরুণী!

লুকিয়ে বিয়েতে সায় ছিল না কারও। একে অপরের ভালবাসার কথা তাই পরিবারকে জানিয়েছিলেন। কিন্তু সে সম্পর্ক নিয়ে বেঁকে বসেছিল উভয় পরিবারই।

ফলে বাধ্য হয়েই পালিয়ে বিয়ের দিন ক্ষণ প্রায় যখন নিশ্চিত, ঠিক তখনই আরও বড় বাধা এসে উপস্থিত। সারা দেশব্যাপী লকডাউন ঘোষণা করে দিলেন প্রধানমন্ত্রী।তাহলে উপায়? এতদিন নিরুপায় হয়েই ঘরবন্দি ছিলেন ওই দুই প্রেমিক-প্রেমিকা- অন্ধ্রপ্রদেশের কৃষ্ণা জেলার হনুমান জাংশনের চিতিকলা ভবানী এবং তাঁর ঠিক পাশের গ্রামের তরুণ সাই পুণ্যায়া।

এ দিকে লকডাউনের মেয়াদও ফের বাড়াতে পারে, তাই বাধ্য হয়েই ৬০ কিলোমিটার হেঁটে প্রেমিকের কাছে গিয়ে বৃহস্পতিবার বিয়েটা সেরেই ফেললেন চিতিকলা।তবে তাতেও তাঁদের ভালবাসার হ্যাপি এন্ডিং হয়নি। সূত্রের খবর, মেয়েকে বাড়িতে দেখতে না পেয়ে থানায় নিখোঁজ ডায়েরি করেছিল চিতিকলার পরিবার।

আর তাঁরা যখন বাড়ির মেয়ের কান্ডের কথা জানতে পারলেন, নবদম্পতিকে রীতিমতো হুমকি দিতেও শুরু করে বলে অভিযোগ চিতিকলা এবং পুণ্যায়ার। নিরাপত্তা চেয়ে আপাতত পুলিশের দ্বারস্থ হয়েছেন নবদম্পতি।

পুলিশ সূত্রের খবর, চিতিকলা এবং পুণ্যায়ার চার বছরের সম্পর্ক। সম্প্রতি তাঁরা তাঁদের সম্পর্কের কথা বাড়িতে জানান। কিন্তু দুই বাড়ি থেকেই কেউ সেটা মানতে চাননি। ফলে তাঁরা পালিয়ে গিয়ে বিয়ে করবেন স্থির করেছিলেন। কিন্তু লকডাউন শুরু হয়ে যাওয়ায় সে উপায় বন্ধ হয়ে যায়।

এ বার লকডাউনের মেয়ার ফের বাড়তে পারে এই আশঙ্কা করেই দুজনেই চটজলদি বিয়ে করে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। রাস্তায় কোনও যানবাহন নেই। তাই বাধ্য হয়েই ৬০ কিলোমিটার হেঁটে প্রেমিকের কাছে পৌঁছন চিতিকলা পুলিশ জানিয়েছে, দুজনেই সাবালক, তাই পরিবারের অভিযোগের বিরুদ্ধে কোনও আইনি ব্যবস্থা নেওয়া সম্ভব নয়। উভয় পরিবারকে থানায় ডেকে কাউন্সেলিং করা হয়েছে।

পেট থেকে গ্যাস দূর করার ঘরোয়া- গ্যাসের যন্ত্রণায় যারা ভোগেন তারাই ভাল জানেন কতটা অস্বিস্তিকর। একটু ভাজাপোড়া অথবা দাওয়াত, পার্টিতে মসলাযু্ক্ত খাবার খেলে তো শুরু হয়ে যায় অস্বস্তিকর গ্যাসের সমস্যা।ফাস্ট ফুড, ব্যস্ত জীবনযাত্রার যুগে গ্যাস, পেটের অসুখ এখন ঘরোয়া।যে কোনো মানুষের বাসায় গেলেই আর যাই হোক গ্যাস্ট্রিকের ১ পাতা ওষুধ অবশ্যই পাওয়া যায়। তবে কী গাদা গাদা

গ্যাসের ওষুধে এ সমস্যা দূর হয়!কিন্তু ঘরোয়া কিছু উপায় আছে যেগুলো প্রয়োগ করলে গ্যাস, বুক জ্বালা থেকে সহজেই বাঁচা যায়।জেনে নেওয়া যাক:শসা:শসা পেট ঠাণ্ডা রাখতে অনেক বেশি কার্যকরী খাদ্য। এতে রয়েছে ফ্লেভানয়েড ও অ্যান্টি ইনফ্লেমেটরি উপাদান যা পেটে গ্যাসের উদ্রেক কমায়।দই:দই আমাদের হজম শক্তি বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। এতে করে দ্রুত খাবার হজম হয়, ফলে পেটে গ্যাস

হওয়ার ঝামেলা দূর হয় পেঁপে:পেঁপেতে রয়েছে পাপায়া নামক এনজাইম যা হজমশক্তি বাড়ায়। নিয়মিত পেঁপে খাওয়ার অভ্যাস করলেও গ্যাসের সমস্যা কমে।কলা ও কমলা:কলা ও কমলা পাকস্থলির অতিরিক্ত সোডিয়াম দূর করতে সহায়তা করে। এতে করে গ্যাসের সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। এ ছাড়াও কলার সলুবল ফাইবারের কারণে কলা কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করার ক্ষমতা রাখে।সারাদিনে অন্তত দুটি কলা

খান। পেট পরিষ্কার রাখতে কলার জুড়ি মেলা ভার।আদা:আদা সব চাইতে কার্যকরী অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি উপাদানসমৃদ্ধ খাবার। পেট ফাঁপা এবং পেটে গ্যাস হলে আদা কুচি করে লবণ দিয়ে কাঁচা খান, দেখবেন গ্যাসের সমস্যা সমাধান হবে।ঠাণ্ডা দুধ:পাকস্থলির গ্যাসট্রিক এসিডকে নিয়ন্ত্রণ করে অ্যাসিডিটি থেকে মুক্তি দেয় ঠাণ্ডা দুধ। এক গ্লাস ঠাণ্ডা দুধ পান করলে অ্যাসিডিটি দূরে থাকে।দারুচিনি:হজমের জন্য খুবই ভালো। এক গ্লাস পানিতে আধ চামচ দারুচিনির গুঁড়ো দিয়ে ফুটিয়ে দিনে ২ থেকে ৩ বার খেলে গ্যাস দূরে থাকবে।

জিরা:জিরা পেটের গ্যাস, বমি, পায়খানা, রক্তবিকার প্রভৃতিতে অত্যন্ত ফলপ্রদ। জ্বর হলে ৫০ গ্রাম জিরা আখের গুড়ের মধ্যে ভালো করে মিশিয়ে ১০ গ্রাম করে পাঁচটি বড়ি তৈরি করতে হবে।দিনে তিনবার এর একটি করে বড়ি খেলে ঘাম দিয়ে জ্বর সেরে যাবে।লবঙ্গ:২/৩টি লবঙ্গ মুখে দিয়ে চুষলে একদিকে বুক জ্বালা, বমিবমিভাব, গ্যাস দূর হয়। সঙ্গে মুখের দুর্গন্ধ দূর হয়।এলাচ:লবঙ্গের মতো এলাচ গুঁড়ো খেলে অম্বল দূরে থাকে।পুদিনা পাতার পানি:এক কাপ পানিতে ৫টা পুদিনা পাতা দিয়ে ফুটিয়ে খান। পেট ফাঁপা, বমিভাব দূরে রাখতে এর বিকল্প নেই।মৌরির পানি:মৌরি ভিজিয়ে সেই পানি খেলে গ্যাস থাকে না।এ ছাড়াও খাবারে সরষে যোগ করুন:সরষে গ্যাস সারাতে করতে সাহায্য করে। বিভিন্ন খাবারের সাথে সরষে যোগ করা হয় যাতে সেইসব খাবার পেটে গ্যাস সৃষ্টি করতে না পারে। নজর রাখতে হবে নিজের খাওয়া-দাওয়ার প্রতি।জেনে নিতে হবে কোনটি খাওয়া উচিত হবে কোনটি হবে না।

Check Also

সব জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে যে হচ্ছেন শেখ হাসিনার পরে আওয়ামী লীগের নতুন সভাপতি

আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী এলেই প্রথম যে প্রশ্নটি সামনে আসে তা হলো শেখ হাসিনার পর কে? …