Home / Uncategorized / ধর্মের টানে অভিনয় ছেড়ে দিলেন সুজানা

ধর্মের টানে অভিনয় ছেড়ে দিলেন সুজানা

দেশের জনপ্রিয় মডেল ও অভিনেত্রী সুজানা জাফর। কয়েক বছর ধরে একজন ব্যবসায়ী হিসেবেও সুপরিচিত তিনি। পাশাপাশি একজন সমাজ সচেতন মানুষ হিসেবেও সমাদৃত।

বছর জুড়েই এতিম ও বৃদ্ধদের জন্য নানারকম উদ্যোগ থাকে তার। করোনা পরিস্থিতিতেও বেশকিছু উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন। সম্প্রতি ময়মনসিংহ জেলার ভালুকা ইউনিয়নের পাড়াগাঁও এলাকার এক বৃদ্ধার দায়িত্ব নিয়েছেন।

এবার নতুন খবর হলো অভিনয় শোবিজ জগত ছেড়ে দেওয়ার ঘোষণা দিলেন লাক্স ফটো-সুন্দরী মডেল ও অভিনেত্রী সুজানা জাফর। শোবিজ ছেলে ধর্মে-কর্মে মন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।
২০১৮ সালের নভেম্বরে ওমরাহ হজ পালন করেন সুজানা। গত তিন মাস হোম কোয়ারেন্টাইনে থেকে নিয়মিত কোরআন, হাদিস পড়েছেন। আর ধীরে ধীরে নাকি বদলে গেছে তার মন। এমনটাই জানান তিনি।

সুজানা বলেন, ‘গত ৩ মাসে কোরআন, হাদিস থেকে যা শিখেছি সেখান থেকে আমি যে শান্তি পেয়েছি, তা আগে কখনই পাইনি। আমার মন থেকে মিডিয়ায় কাজের ইচ্ছে নষ্ট হয়ে গেছে। তাই আমি মিডিয়াতে আর কাজ করবো না।’

উল্লেখ্য, ২০০১ সালে মডেলিং এর মাধ্যমে মিডিয়ায় যাত্রা শুরু করেন সুজানা জাফর। ২০০৩ সালে তিনি লাক্স ফটোসুন্দরী খেতাব পান। এরপর অনেক বিজ্ঞাপন, মিউজিক ভিডিও, নাটকে তার দেখা মিলেছে। গত ৩ বছর ধরে মিডিয়াতে অনিয়মিত সুজানা। বর্তমানে বুটিক্স ব্যবসা করছেন।নব্বই দশকের জনপ্রিয় নায়িকা লিমা। অভিনয় করেছেন সালমান শাহ, আলমগীর, ওমর সানীর মতো অভিনেতাদের বিপরীতে। মাত্র ৮ বছরের অভিনয়জীবনে ২৫টি সিনেমায় অভিনয় করে জনপ্রিয়তা পান। ১৯৯৮ সালের শেষের দিকে হঠাৎ অভিনয় থেকে দূরে চলে যান। এরপর ২১ বছর ধরে লিমার কোনো খোঁজ নেই। এত বছর পর অভিনয় থেকে দূরে সরে যাওয়া এবং পরবর্তী সময়ের গল্প শোনালেন লিমা।

লিমা এখন কোথায় থাকেন? এই তথ্য খুঁজতে গিয়ে শুরুতেই হ’তাশ হতে হলো। বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির কাছে তাঁর কোনো তথ্য নেই। লিমা যেসব শিল্পী ও নির্মাতার সঙ্গে কাজ করেছেন, তাঁদের অনেকের কাছে খোঁজ করেও সঠিক তথ্য জানা গেল না। কেউ বলেছেন, লিমা সপরিবারে যুক্তরাষ্ট্র বা কানাডায় থাকেন।

বাণিজ্যিক ধারার জনপ্রিয় সিনেমার নির্মাতা দেলোয়ার জাহান ঝন্টুর ছবিতেই বেশি অভিনয় করেছেন লিমা। এই নির্মাতা বলেন, ‘ভালো একটা ক্যারিয়ার ছেড়ে হঠাৎ চলে গেল লিমা। এখন আর তাঁর খবর কেউই জানি না।’ অবশেষে মাসখানেক ধরে খোঁজ খবর নেওয়ার পর পাওয়া গেল লিমার ঠিকানা।

একটি পাঁচতলা বাড়ির দোতলার কলবেল চেপে দাঁড়িয়ে আছি। কিছুক্ষণ পর সাত–আট বছর বয়সী এক মেয়ে দরজা খুলে তাকিয়ে আছে। জিজ্ঞেস করলাম, ‘এই বাসায় অভিনেত্রী লিমা থাকেন?’ শুনে মেয়েটি নিরুত্তর তাকিয়ে থাকে। বললাম, ‘আগে সিনেমায় অভিনয় করতেন, নাম লিমা।’ মেয়েটি বলল, ‘এসব আমি জানি না।’ ভেতর থেকে একজনের ডাকে মেয়েটি চলে গেল। ঠিক মিনিট দুয়েক পর একজন ষাটোর্ধ্ব ব্যক্তি বের হলেন।
আবার বললাম, ‘অভিনেত্রী লিমা কি এই বাসায় থাকেন?’ ভদ্রলোক আমার পরিচয় জেনে একটু সময় নিয়ে বললেন, ‘সে তো অনেক আগে অভিনয় করত। এখন আর অভিনয় করে না, তাকে নিয়ে আর না লেখাই ভালো।’ হাঁপ ছেড়ে বাঁচলাম এই ভেবে যে লিমা এ বাসায় থাকেন। যাঁর সঙ্গে কথা হলো, তিনি লিমার বাবা মোহম্মদ মোহর আলী। তিনি বললেন, ‘আর যদি কিছু জানতেই চান, তাহলে আমার নম্বর নিয়ে যান। ফোন দিয়েন। বাসায় আজ একটি জন্মদিনের অনুষ্ঠান। আজ কথা বলা সম্ভব নয়।’

দুই সপ্তাহ ধরে ফোনে চেষ্টার পর আবার লিমার বাবার সঙ্গে দেখা করলাম। দোতলা বাড়ির নিচে কথা বলছি। প্রথমেই মোহর আলী বললেন, ‘চলচ্চিত্র জগৎ ছেড়ে দিয়েছে, এখন এগুলো নিয়ে লিখে আর কী হবে? তারপরও যদি জানতে চান, চলুন, বাসায় গিয়ে কথা বলি।’

বাংলাদেশের নব্বই দশকের জনপ্রিয় অভিনেত্রী লিমা। পারিবারিক নাম শামীমা আলি লিমা। জন্ম ২২ সেপ্টেম্বর ১৯৭৯, কুমিল্লার দাউদকান্দি, বর্তমানে তিতাস থানায়। বেড়ে ওঠা ঢাকায়। তিন বোনের মধ্যে লিমা সবার বড়। লিমার অভিনয় শুরু শৈশব থেকেই। বাবা একজন মুক্তিযো’দ্ধা। ১৯৭১ সালে যুদ্ধের পর ঢাকায় ব্যবসা শুরু করেন।

মোহর আলী ছিলেন শিল্পমনস্ক। মোহাম্মদপুরে থাকতেই ‘কুট্টি ভাই’ নামে একজনের সঙ্গে মোহর আলীর পরিচয় হয়। তিনি বাংলাদেশ টেলিভিশনের প্রকৌশলী ছিলেন। তিনিই লিমাকে দেখে বিটিভির অঙ্কুর অনুষ্ঠানে যোগ দিতে বলেন। অঙ্কুরের মধ্যমেই লিমার অভিনয়ের শুরু। তখন লিমার বয়স ৯ বছর। লিমা ক্রমেই অভিনয়, নাচ, গানে ভালো করতে থাকেন। এরপর যুক্ত হন সিনেমায়।

Check Also

মন্ত্রীসভায় রদবদল,সবাইকে অবাক করে যারা হচ্ছেন নতুন মন্ত্রী

প্রাণঘা’তী করো’না ভাই’রাস ম’হামা’রির মধ্যেই মন্ত্রিসভায় নতুন মুখ অন্তর্ভুক্ত হচ্ছে। চলতি বাজেট অধিবেশন শেষে যেকোনো …