Home / Diet and Exercise / মিল’নে মহিলারা সন্তুষ্ট নন তিনটি কারণে!

মিল’নে মহিলারা সন্তুষ্ট নন তিনটি কারণে!

তাঁরা মুখে কিছু বলেন না। যৌ’নতার বিষয় অনেক কিছুই অব্যক্ত রেখে দেন নিজের মনে। কারণ, একটাই। ছোটো থেকে আমাদের সমাজ শিখিয়েছে, যৌ’নতা নিয়ে সব কিছু করো, কিন্তু আলোচনা কোরো না। ফলে, মনের মধ্যে কিছু প্রশ্ন অব্যক্তই থেকে যায়। যার কারণে আজও স্বামী-স্ত্রী মিলিত হলেও তাঁরা মি’লন নিয়ে আলোচনা করেন না। তাঁদের কার কী পছন্দ, তাঁরা হয়তো নিজেই জেনে উঠতে পারেন না জীবনভর। মহিলাদের যৌ’ন পছন্দের জায়গা তো একেবারেই অধরা থেকে যায়। স্বামীর পছন্দ-অপছন্দের যদিও বা আভাস মেলে, স্ত্রীর বিষয়ে একেবারেই ভাবলেষহীন আচরণ লক্ষ্য করা যায়। তবে সে’ক্সোলজিস্টরা বলেন, মহিলাদের যৌ’ন অসন্তুষ্টির ৩টি প্রাথমিক কারণ আছে। জেনে নিন। তা হলে হয়তো, স্ত্রী/প্রেমিকার মন বুঝতে সুবিধে হবে –

স্ত্রী/প্রেমিকার সঙ্গে আলোচনা না করা
আগেই বলেছি, আজও আমাদের সমাজে যৌ’নতা নিয়ে তেমন আলোচনা হয় না। এই ট্যাবু থেকে বেরিয়ে আসার সময় এসেছে। স্ত্রী/প্রেমিকার ভালোলাগা-মন্দলাগা নিয়ে তাঁর সঙ্গে আলোচনা করুন। তার মতামতকেও প্রাধান্য দিন। মাঝেমধ্যে তাঁর ভালোলাগাকেও আমল দিন।

স্ত্রী/প্রেমিকাকে সময় না দেওয়া
আপনি পুরুষ। কথাতেই আছে, পুরুষদের আবেগ থাকে কম। অন্তত প্রেমের ক্ষেত্রে মহিলাদের চেয়ে অনেক কম। মহিলারা অনেক বেশি ইমোশনাল। ফলে সেই ইমোশনে ঘাটতি দেখা দিলে তার কোপ পড়তেই পারে আপনাদের সে’ক্স লাইফে। তাই ব্যস্ত সময়ের মধ্যেও স্ত্রী/প্রেমিকাকে সময় দিতে চেষ্টা করুন। সিনেমায় নিয়ে যান। বাইরে ডিনার করুন। না হলে বাড়িতেই একসঙ্গে সময় কাটান।

বোরিং সে’ক্স লাইফ
প্রত্যেকদিন ডাল-ভাত খেতে ভালো নাও লাগতে পারে আপনার স্ত্রী/প্রেমিকার। একদিন তিনি চাইতেই পারেন বিরিয়ানি, চিকেন চাপ, হটডগ, কিংবা ললিপপ। তাই সেই মুহূর্তে স্ত্রী/প্রেমিকার চাহিদা বোঝার চেষ্টা করুন। একঘেয়ে ব্যাপার না করে ইন্টারেস্টিং কিছু করুন।

যে ৫ নারীর কারণে ঘরে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ লাগে!

যুগ পরে যুগ ধরেই শুনে আসছি প্রেমের নাকি কোন বয়স নেই। কিন্তু একবার প্রেমে পড়লে পরে বয়স নিয়ে বাধে গণ্ডগোল। আবার প্রেমে পড়লে দুনিয়া নাকি রঙিন হয়ে যায়। সবকিছু মনে হয় আশ্চর্য রকমের সুন্দর। কিন্তু প্রেমে পড়ার সময়ে আমরা মোটেও সাবধান হতে পারিনা কারণ সাবধানতা যেখানে সেখানে প্রেম মানায় না। তবুও প্রেমের ক্ষেত্রে ৫ ধরনের নারীদের দূরে থাকাই উত্তম। চলুন জেনে নেই কেমন হয় তারা?

অতিমাত্রায় নারীবাদী যে- কিছু মেয়ে বা নারী আছেন যারা মনে করেন সমাজে যা কিছু খারাপ হচ্ছে, এবং যা আগামী দিনে হতে চলেছে তা সবই পুরুষদের জন্য হয়েছে এবং হবে। শুধু তাই নয়, এঁরা সব ব্যাপারে নিজেদের শ্রেষ্ঠ ভাবেন। বিশ্বে এমন কোনও কাজ নেই যা এঁরা পুরুষদের থেকে ভালো করতে পারেন না। আপনি যা খুশি করুন, মন পাবেন না এসব মেয়েদের।

টাকা ছাড়া কিছুই বোঝেনা এমন- কিছু মেয়ে আছে কথায় কথায় তার ব্র্যান্ডেড পোশাক, হিরের আংটি কোনও কিছু চাইতেই তার আটকায় না? বরং এটা না পেলে অভিমান করে সময়ে অসময়ে। ভেবে দেখুন, এত চাহিদা পরবর্তী সময়েও সামলাতে পারবেন আপনি?

অভিমানকে কাবু করার অস্ত্র হিসেবে নেয় এমন- যে কোন খুঁটিনাটি বিষয় নিয়ে রেগে আগুন হয়ে তেলে বেগুন হয়ে যায় কিছু মেয়ে। সবসময়েই আপনার ছোটখাটো বিষয় নিয়ে যার খুঁতখুঁতে রাগ রয়ে যায়। একবার ভাবুন এরকম মেয়ের সাথে সারা জীবন থাকবেন কিভাবে? একটা সময়ে আপনার নিজের ঘরকে ৩য় বিশ্বযুদ্ধক্ষেত্র মনে হবে।

কথায় কথায় বিয়ে- ফেসবুক চ্যাট থেকে দেখা করেছেন তিনদিন হতে পারিনি, আর এর মধ্যে বাড়ির লোকের সঙ্গে আলাপ করার আবদার! এমনকি উইন্ডো শপিংয়ে শুধু বেনারসির দিকেই নজর। এত দ্রুত সবকিছু হয়ে গেলে তালাকটাও কিন্তু দ্রুতই এগোবে।

হুট করে ব্রেক আপ- আবার আরেকজনের সাথে প্রেম। কয়েকদিন হয়েছে ব্রেক আপ হতে পারেনি মেয়ের তার ভেতরেই আপনি এনট্রি নিলেন। নিজেদের মধ্যে কথা কম হয়, বরং এক্স-কে নিয়ে শুনতে হয় বেশি! বলি কি আর একটু ভেবে দেখুন। কেমন লাগবে তখন?

Check Also

যে ২৪টি যৌ’ন আকাঙ্ক্ষা মেয়েদের রয়েছে, যা অনেক পুরুষরা এখনো জানে না!

যে ২৪টি যৌ’ন আকাঙ্ক্ষা মেয়েদের রয়েছে, অনেকসব প্রেমের অবশ্যম্ভাবী পরিণতি হয়ে থাকে শারীরিক ঘনিষ্ঠতা বা …