Home / Daily Health Tips / করোনা: নতুন আশার আলো দেখালো হোমিওপ্যাথিক ওষুধ!

করোনা: নতুন আশার আলো দেখালো হোমিওপ্যাথিক ওষুধ!

করোনা: নতুন আশার আলো দেখালো হোমিওপ্যাথিক ওষুধ!

করোনাভাইরাসের তান্ডবে পুরো বিশ্ব আতঙ্কগ্রস্থ গোটা বিশ্ব। করোনার আক্রমণ ঠেকাতে একাধিক কর্মকাণ্ড চলছে পুরো বিশ্বজুড়ে। করোনাভাইরাসের (এনসিওভি) সংক্রমণ প্রতিরোধে হোমিওপ্যাথিক এবং ইউনানি ওষুধ কার্যকর হতে পারে কেন্দ্রীয় আয়ুষমন্ত্রকের একটি পরামর্শে এমনটাই বলা হয়েছে।

আয়ুষমন্ত্রকের নিয়ন্ত্রণাধীন বৈজ্ঞানিক পরামর্শদাতা পর্ষদের সঙ্গে সেন্ট্রাল কাউন্সিল ফর রিসার্চ ইন হোমিওপ্যাথি (সিসিআরএইচ)-র গত মঙ্গলবার একটি বৈঠক হয়। ওই বৈঠকের পরই মন্ত্রকের তরফে বুধবার পরামর্শ জানিয়ে একটি বিবৃতি জারি করা হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, আর্সেনিকাম অ্যালবাম ওষুধটি করোনাভাইরাসের সংক্রম প্রতিরোধ করতে সহায়ক। হোমিওপ্যাথিক এই ওষুধটি প্রফিল্যাকটিক মেডিসিন হিসাবে ভাইরাসটির বিরুদ্ধে কাজ করবে।

বলা হয়েছে, ওষুধটি খালি পেটে প্রতিদিন তিনবার করে খেতে হবে। আবার একই সঙ্গে করোনাভাইরাস রদে ইউনানি ওষুধের কথাও বলা হয়েছে।

জানানো হয়েছে, হোমিওপ্যাথিক ওষুধটি সংক্রমণ ছড়ানোর এক মাস পর্যন্ত চালিয়ে যাওয়া যেতে পারে। পরামর্শদাতা আরও জানিয়েছেন, ইনফ্লুয়েঞ্জা জাতীয় অসুস্থতা প্রতিরোধের জন্যও একই পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

ইতিমধ্যে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে হোমিওপ্যাথি ও ইউনানি ওষুধ ব্যবহারের পরামর্শ দিয়েছে ভারতের ‘আয়ুস মন্ত্রণালয়’। আয়ুর্বেদ, ইউনানি, হোমিওপ্যাথি চিকিৎসা বিষয়ক মন্ত্রণালয়টি বুধবার এক বিবৃতিতে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধের উপায় সংক্রান্ত নানা তথ্য প্রকাশ করেছে। খবর হিন্দুস্তান টাইমস।

তাছাড়া বিশ্বে মহামারি আকার ধারণ করা করোনা ভাইরাস হোমিওপ্যাথির মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণ সম্ভব বলে দাবি করেছেন টাঙ্গাইলের মির্জাপুর হোমিওপ্যাথি চিকিৎসক পরিষদের সভাপতি ডা. মো. শাহাদৎ হোসেন। তিনি দাবি করেন, পূর্বে হোমিওপ্যাথির মাধ্যমে ডেঙ্গু রোগেরও নিয়ন্ত্রণ যেভাবে সম্ভব হয়েছে। বর্তমানে করোনা ভাইরাসের নিয়ন্ত্রনও সম্ভব।

বাংলাদেশ হোমিও বোর্ড জানিয়েছে এর মধ্যে প্রায় দেড় লাখ করোনা উপসর্গ রোগীর উপর আর্সেনিকাম অ্যালবাম ৩০ ওষুধটি সফল ভাবে কাজ করেছে। এছাড়া এই ওষুধ করোনা আক্রান্ত রোগীর উপর উপড়ও সফল হয়েছে বলে যানিছে বোর্ড। সাধারণত এই ওষুধ রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে সর্দি কাশি ও ইনফ্লুঞ্জা জাতীয় রোগ নিরাময় করে।

পাশাপাশি কিছু আয়ুর্বেদিক ওষুধ, ইউনানি পথ্য এবং ঘরোয়া প্রতিকারেরও পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। শেষে বলা হয়েছে, “যদি আপনার করোনা সংক্রমণ ঘটেছে বলে জানা যায়, তা হলে একটি মাস্ক পরে নিন, হাসপাতালে গিয়ে যোগাযোগ করুন”।

Check Also

না জেনে হিজড়ার সঙ্গে বিয়ে হওয়া এক নারীর জীবনের কথা

আধুনিক ভারতীয় না’রীদের চি’ন্তাভাবনা-বি’বেচনা নিয়ে শুরু হয়েছে বিবিসি হিন্দির বি’শেষ ধা’রাবা’হিক প্র’তিবেদন ‘হার চয়েস’। ১২ …