Home / সারাদেশ / ১০ মাসের শিশুকে গলা টিপে হত্যার পর পানির বালতিতে ফেলে রাখেন মা

১০ মাসের শিশুকে গলা টিপে হত্যার পর পানির বালতিতে ফেলে রাখেন মা

রাজধানীর মুগদা এলাকায় ১০ মাস বয়সী শিশু তানজিনার মৃত্যুর রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। পানিতে ডুবে শিশুটির মৃত্যু হয়েছিল বলে দাবি করেছিল তার মা তানিয়া আক্তার। তবে তদন্তে বেরিয়ে আসে, শিশু তানজিনাকে গলা টিপে হ'ত্যা করেছে তার মা। এ ঘটনায় তানিয়াকে আটক করেছে পুলিশ।

গত শুক্রবার (১২ আগস্ট) দুপুরে পূর্ব মানিকনগর বালুর মাঠ সোহাগ মিয়ার টিনশেড বাড়িতে ‌এ ঘটনা ঘটে। এদিন রাগের মাথায় শিশু তানজিনাকে গলা টিপে হ'ত্যা করেন তানিয়া। এরপর ধরা পড়ার ভয়ে মেয়েকে পানির বালতিতে ফেলে রাখেন তিনি। পরে পঙ্গু স্বামী কিতাব আলীকে জানায় মেয়ে ডুবে মারা গেছে। এরপর শিশুটির দাফন সম্পন্ন করেন তারা।

মুগদা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জামাল উদ্দিন মীর বলেন, তানজিনা পানিতে ডুবে মারা যায়নি বলে সন্দেহ করেন তানিয়ার বোনেরা। পরে আশপাশের লোকজনের সঙ্গে কথা বলে জানতে পারেন তানজিনাকে গলা টিপে হ'ত্যা করা রয়েছে। বিষয়টি শুক্রবার সন্ধ্যায় পুলিশকে জানালে আমরা রাতেই তানিয়াকে গ্রেপ্তার করি। জিজ্ঞাসাবাদে নিজের সন্তানকে গলা টিপে হ'ত্যা করার কথা স্বীকার করেন তানিয়া।

এদিকে আদালতের অনুমতি নিয়ে সোমবার কবর থেকে লা'শ তুলে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। ‌এ ঘটনায় তানজিনার বাবা কিতাব আলী বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন।

Check Also

দেড় বছরের সন্তানকে বাঁচাতে খালি হাতেই বাঘের সঙ্গে মায়ের লড়াই

ভারতের মধ্যপ্রদেশে বন থেকে হঠাৎই লোকালয়ে এসে দেড় বছরের এক শিশুকে আক্রমণ করে বসে বাঘ। …