Home / এক্সক্লুসিভ / ‘মেনস্ট্রুয়াল কাপ’ ব্যবহারের আগে যা জানা জরুরি

‘মেনস্ট্রুয়াল কাপ’ ব্যবহারের আগে যা জানা জরুরি

নারীদের মাসের নির্দিষ্ট একটি সময়ে ঋতুস্রাব হয়ে থাকে। যা পাঁচ থেকে সাতদিন পর্যন্ত চলতে থাকে। কারো কারো ক্ষেত্রে এই সময়ের কিছুটা পরিবর্তন ঘটে থাকে। ঋতুস্রাবের সময়ে ব্যবহৃত স্যানিটারি ন্যাপকিন বা ট্যাম্পনের পরিবর্তে পরিবেশবান্ধব বিকল্প হিসেবে উঠে এসেছে ‘মেনস্ট্রুয়াল কাপ’-এর ব্যবহার।

তবে এটি জনপ্রিয় হওয়ার পথে অন্যতম অন্তরায় ‘মেনস্ট্রুয়াল কাপ’-কে ঘিরে নানা রকম ভ্রান্ত ধারণা। ‘মেনস্ট্রুয়াল কাপ’ যোনির ভেতরে প্রবেশ করাতে হয়, তাই অল্পবয়সি ও অবিবাহিত মেয়েরা এই কাপ ব্যবহার করতে চান না। কিন্তু এই কাপ যেমন সুরক্ষিত, তেমনই যেকোনো বয়সের মেয়েরাই ব্যবহার করতে পারেন।

‘মেনস্ট্রুয়াল কাপ’ নিয়ে কয়েকটি ভ্রান্ত ধারণা রয়েছে। চলুন জেনে নেয়া যাক সেগুলো কী কী-

এটি ব্যবহার করা অস্বস্তিকর

‘মেনস্ট্রুয়াল কাপ’ ব্যবহার করা নিয়ে অনেকের মনেই ভীতি থাকে। তবে এটি ব্যবহারের সঠিক পদ্ধতি জেনে গেলে মোটেই অস্বস্তিকর লাগে না। সি-এর আকৃতিতে ‘মেনস্ট্রুয়াল কাপ’ ভাঁজ করে যোনিপথে প্রবেশ করাতে হয়। প্রবেশ করানোর পর নিজে থেকেই কাপের ভাঁজ খুলে যায়। প্রথমে অস্বস্তিবোধ হলেও বেশ কয়েক বার ব্যবহার করলেই আর অসুবিধা হয় না। সাঁতার কাটা থেকে ভারী শরীরচর্চা— ‘মেনস্ট্রুয়াল কাপ’ পরে সবই করা যেতে পারে। রাতে শোয়ার সময়েও নিশ্চিন্তে এই কাপ ব্যবহার করতে পারেন।

প্রস্রাবের সময়ে অসুবিধা হয়

কাপ শক্ত হয়েই আটকে থাকে যোনিতে। ফলে সাধারণত মলমূত্র ত্যাগ করার সময়ে তা খুলে বেরিয়ে আসার আশঙ্কা কম। কাপ ভেতরে আটকে যেতে পারে বলে ভয় পান অনেকে। কিন্তু এই ভয়ের কোনো কারণ নেই। আঙুলের সাহায্যে সহজেই কাপ বার করে আনা যেতে পারে।

যোনিতে সংক্রমণের ঝুঁকি

‘মেনস্ট্রুয়াল কাপ’ ব্যবহারের সময়ে যোনিতে সংক্রমণের ঝুঁকি কম। এক্ষেত্রে জ্বালাভাব অনুভূত হয় না। স্যানিটারি ন্যাপকিন ব্যবহারের ক্ষেত্রে যোনির চারপাশে র‍্যাশ বেরিয়ে যায়। ‘মেনস্ট্রুয়াল কাপ’ যোনির ভেতরে থাকে। তাই র‍্যাশ বেরোনোর কোনো ভয় নেই।

কুমারিত্ব হারানোর ভয়

কুমারিত্ব হারানোর কথা ভেবে এই কাপ ব্যবহার করতে দ্বিধা করবেন না। সাইক্লিং, শরীরচর্চা ও আরও নানা কারণে হাইমেন ছিঁড়ে যেতে পারে। কিন্তু ‘মেনস্ট্রুয়াল কাপ’ ব্যবহার করার সঙ্গে কুমারিত্ব হারানোর সরাসরি কোনো সম্পর্ক নেই।

খুব বেশি দিন ব্যবহার করা যায় না একটি কাপ

এটি পুনর্ব্যবহারযোগ্য। এক-একটি কাপ চাইলে পাঁচ বছর পর্যন্তও ব্যবহার করা যায়। শুধু জেনে রাখা দরকার, কাপ পরিষ্কার করার সঠিক কায়দা। প্রতি মাসে ঋতুস্রাব শুরু হওয়ার আগে কাপটিকে স্টেরিলাইজ করে নিতে হবে। শ্যাম্পু দিয়ে পরিষ্কার করে নিয়ে নির্দিষ্ট পাউচে ভরে রাখুন। খোলা রাখবেন না।

Check Also

ভাবিকে বিয়ে করা কি জায়েজ?

দাম্পত্য সম্পর্কের গুরুত্ব বোঝাতে পবিত্র কোরআনে আল্লাহ রাব্বুল আলামীন ইরশাদ করেছেন, স্ত্রীরা তোমাদের ভূষণ এবং …