Home / এক্সক্লুসিভ / বিয়ের পর মেয়েদের বুক কেন বড় হয়

বিয়ের পর মেয়েদের বুক কেন বড় হয়

মানুষের জীবনের বিয়ের থেকে কোনো বড়ো সম্প’র্ক আর একটা হয়না। সব ছেলে মে’য়েরই স্বপ্ন থাকে একদিন তাদের বিয়েটাও ধুমধাম করে হবে।কিন্তু এমন অনেক মানুষও আছে যাদের বিয়ে হয়ে ওঠেনা। সেটা অবশ্য সংখ্যায় অতি কম। বিয়ের জন্য নিজের

পছন্দের স’ঙ্গীকে পেলে তো কোনো কথাই নেই। কারণ আপনি তাকে ভালোভাবে চেনে।

কিন্তু অ্যারেঞ্জ ম্যারেজের সময় ছেলেদের মনে নানা প্রশ্নই ঘোরাফেরা করে। সাধারণত বিয়ের জন্য উৎসাহিত মে’য়েরাই বেশী থাকে। কারণ সে চায় যে তার স্বা’মী যেনো তাকে বিয়ের সাজে দেখে তার থেকে চোখ না হাটাতে পারে তার জন্য সে খুব পরিশ্রমের সাথে নিজেকে তৈরী করে।বিয়েতে যাতে তাকে এক রাজকন্যার মতো লাগে সেজন্য মে’য়েরা বিয়ের আগে থেকেই ডায়েটিং শুরু করে দেয়।

এছাড়া শাড়ি যাতে ফি’টিং থাকে সেজন্য তারা সেগুলো বেছে বেছে কেনে।কিন্তু বিয়ের আগে এত পরিশ্রম করার পরও মে’য়েদের শ’রীর এত ফুলে ফেঁ’পে ওঠে কেনো জানেন? বিয়ের পর মে’য়েদের ও তাদের কোমড় প্রচুর বড়ো হয়ে যায়। যেটি নিয়ে গবেষকরা বলছেন এর কারণ অধিক পরিমাণে মি’ল’ন। আরও পড়ুন : তিন স’ন্তানের মা শাহিদুন আক্তার। স্বা’মী থাকেন কাতারে। প্রথম স্বা’মীর অনুপস্থিতিতে দ্বিতীয় ব্যক্তির স’ঙ্গে ঘর বেঁ’ধে ফে’লেন। কাতার থেকে স্বা’মী ফিরে আসার পরে এখন অ;স্বীকার করেছেন। আ;দালতে বলেছেন, বিয়ে নয়, কিছু দিনের জন্য সাকিবের স’ঙ্গে একত্রে ছিলাম মাত্র। তবে এখন স’ন্তানদের নিয়ে আগের স্বা’মী বিল্লাল হোসেনের কাছেই থাকতে চাই।

সোমবার বিকেলে চাঁদপুরে বিচারিক হাকিম মো. হাসানুজ্জামানের আ’দালতে ফৌজদারি কার্যবিধির ২২ ধারায় এমন স্বী’কারোক্তি প্রদান করেন, চাঁদপুরের মতলব উত্তরের শাহিদুন আক্তার। আরও পড়ুন : অনেক প্রত্যাশা নিয়ে মানুষ ঘর বাঁধে। সেই ঘরে থাকবে প্রেম, বিশ্বাস, আন্তরিক বোঝাপড়া, আমৃ’ত্যু পাশাপাশি থেকে যাওয়ার টান, এমনটাই চান সব দম্পতি। তবুও সেই প্রত্যাশা-চাওয়ার পালে মন্দ বাতাস লাগে। র’ক্তাক্ত হয় বিশ্বাসের মানচিত্র। ভে’ঙে যায় অনেক আবেগে বাঁ’ধা ঘর।

চারপাশের মানুষেরা সেই ঘর ভাঙার বেদনা দেখে না। অনুভব করে না যে দুটি হৃদয় ভালোবেসে একে অপরকে আঁকড়ে ধরেছিল সে দুটি হৃদয় বিচ্ছেদে কতোটা ক্ষ’ত-বিক্ষ’ত হয়! সেই অনুভূতিকে পাশ কাটিয়ে সবাই মেতে ওঠে ঘর ভাঙার সমালোচনায়।

তেমনি সমালোচনার মুখে রয়েছেন কলকাতার সিনেমার নায়িকা শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়। গেল কয়েক মাস ধরে পশ্চিমবাংলার গণমাধ্যমগুলোতে গুঞ্জন, ভে’ঙে যাচ্ছে শ্রাবন্তীর সংসার। স্বা’মী রোশন সিংয়ের স’ঙ্গে নাকি তার দূরত্ব বেড়েছে। নায়িকাও অবশ্য এ নিয়ে ‘রা’টি করছেন না।

এদিকে আ’নন্দবাজার ২৮ ডিসেম্বর প্রকাশিক এক প্রতিবেদনে সেই ভাঙনের গুঞ্জনে এবার মি’লনের সুর বাজালো। সেখানে দাবি করা হয়েছে, এই মুহূর্তে শ্রাবন্তী-রোশনের সোশাল মিডিয়া বলছে, স্বা’মীর স’ঙ্গে রাগ-অভিমানের বরফ গলছে শ্রাবন্তীর।নতুন বছরে আবার কি নতুন করে মিলবেন রোশন-শ্রাবন্তী?- এমন প্রশ্ন ছুঁড়ে দিয়েছে কলকাতাভিত্তিক জনপ্রিয় গণমাধ্যমটি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শ্রাবন্তীর সংসার জোড়া লাগার সম্ভাবনা অনেকখানিই। সামাজিক পাতায় একের পর এক পোস্ট দিয়ে ফের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন রোশন। বছর শেষে সেই ডাকেই যেন একটু একটু করে সাড়া দিচ্ছেন অভিনেত্রীও। কেমন করে? দিন কয়েক আগের পোস্টে রোশনকে নীরবতার মর্ম বুঝিয়েছেন। রোশন যতখানি সোশাল মিডিয়ায় সরব হয়েছিলেন, তার অভিনেত্রী স্ত্রী ততটাই নীরব।

সবার মধ্যে একা দাঁড়িয়ে থাকা যুবকের ছবি পোস্ট করেন রোশন। তার দিন দুই পরেই প্রয়াত বলিউড স্টার সুশান্ত সিংহ রাজপুতের স’ঙ্গে নিজের ছবি শেয়ার করেন। এই পোস্ট দেখে বি’ষন্ন নেটাগরিকদের মনও।

রোশনের এই পোস্টগু’লি কি ছুঁয়ে গিয়েছে শ্রাবন্তীকেও? রবিবাসরীয় সন্ধেয় তিনি গানে গানে আশ্বস্ত করেছেন রোশনকে? ব্যাকগ্রাউন্ডে বেজেছে ‘ম্যায় খিলাড়ি তু আনাড়ি’র ‘চুরাকে দিল মেরা’ গান। সেই গানের বিশেষ অংশে লিপ সিঙ্কিং করেছেন অভিনেত্রী, ‘নেহি বেওয়াফা তুম ইয়ে মুঝকো খবর হ্যায়, বদলতি রুতমে মগর মুঝকো ডর হ্যায়’।

অর্থাৎ, রোশনের প্রতি ভালবাসা, আস্থা একেবারে হা’রিয়ে ফে’লেননি শ্রাবন্তী! পাশাপাশি, গানের এই বিশেষ অংশ বেছে নেওয়া, তাতে লিপ সিঙ্কিং এবং শ্রাবন্তীর অভিব্যক্তি; সব মিলিয়ে ইতিবাচক কিছুই খুঁজে পাচ্ছেন নেটাগরিকেরা।

Check Also

বেশিক্ষন বীর্য ধরে রাখবেন কি করে,জেনে নিন কিছু টিপস

ছেলের যদি করার সময় ১০মিনিটের মাথায় বী'র্যপাত হয়, সেটি সম্পূর্ণ স্বাভাবিক । একে দ্রুত বী'র্যপাত …