Home / সারাদেশ / দুই বাসে দুইবার গণধ”ণ, সাহায্য চাইতে গেলে আবারও ৬-৭ জন মিলে গণধ”ণ

দুই বাসে দুইবার গণধ”ণ, সাহায্য চাইতে গেলে আবারও ৬-৭ জন মিলে গণধ”ণ

চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে চলন্ত বাসে এক ত’রুণী ধ”ণের শি’কার হয়েছেন। এ ঘটনায় অ’ভিযোগ দিতে যাওয়ার সময় অপর একটি বাসে উঠলে সেখানেও ধ”ণের শি’কার হয়েছেন তিনি।

এছাড়া ধ”ণের ঘটনায় পূর্বপরিচিত এক তরুণের সাহায্য চাইলে কৌশলে তাকে ডেকে নিয়ে তৃতীয় দফা গণধ”ণ করা হয়। এ ঘটনায় পুলিশ শুক্রবার রাত ১০টা পর্যন্ত অ’ভিযান চা’লিয়ে ছয়জনকে গ্রে’প্তার করেছে। গ্রে’প্তারকৃতরা হলেন- সীতাকুন্ড উপজে’লার মাহমুদাবাদ এলাকার মো. দুলালের ছেলে আশরাফুল ইসলাম (২৩)

বাঁশবাড়ীয়া এলাকার মো. ইয়াছিনের ছেলে শাহাদাৎ হোসেন (১৮), মুরাদপুর এলাকার মোজাম্মেল হোসেনের ছেলে রায়হান উদ্দিন রানা (২০), উত্তর ইদিলপুর এলাকার মো. নুর নবীর ছেলে মো. বেলাল হোসেন (২৩), শীবপুর এলাকার মো. সালামত উল্লাহর ছেলে মো. ইসমাঈল (৩২), মিরসরাই উপজে’লার মধ্যম কুরুয়া এলাকার মো. জেবল হোসেনের ছেলে মো. সাগর (২২)। মিরসরাই থানার পরিদর্শক (ত’দন্ত) ও মা’মলার ত’দন্ত কর্মকর্তা মো. কামাল হোসেন জানান, গত বুধবার সন্ধ্যায় মিরসরাই থেকে এক ত’রুণী চাকা পরিবহনের একটি বাসে ওঠেন।

বাসচালক আশরাফুল ইসলামকে চট্টগ্রামের অলংকারে নামিয়ে দেওয়ার কথা জানান। যাত্রীবাহী বাসটি সন্ধ্যা ৭টার দিকে চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড আসার পর সব যাত্রীকে নামিয়ে দেন চালক ও তার সহযোগী। এ সময় ওই ত’রুণীকে নামতে না দিয়ে সীতাকুণ্ডের জুটমিল এলাকায় নিয়ে চালক ও তার সহকারী শাহাদাত ধ”ণ করেন। পরে রাত প্রায় ১১টার দিকে তারা ত’রুণীকে বাস থেকে নামিয়ে দিয়ে পা’লিয়ে যায়।

ত’রুণীর বরাতে পুলিশ জানায়, বাসে ধ”ণের শি’কার হওয়ার পর থানায় অ’ভিযোগ দিতে তার পূর্ব পরিচিত রানা নামের এক তরুণকে ফোন করেন ওই ত’রুণী। রানা তাকে সীতাকুণ্ডের চন্দ্রা এলাকায় যেতে বলেন। কথামতো চন্দ্রা যাওয়ার জন্য অপর একটি বাসে উঠলে একা পেয়ে পুনরায় ধ”ণ করেন ওই বাসের চালক ইসমাইল ও তার সহযোগী। ধ”ণের পর তারা ত’রুণীকে ফে’লে পা’লিয়ে যায়।

ত’রুণী রানার সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করলে রাত প্রায় ১২টার দিকে ঘটনাস্থলে এসে দেখা করে। তাকে থানায় নিয়ে যাওয়ার কথা বলে রানা দুই বন্ধু সাগর ও বেলালসহ মিরসরাই উপজে’লার সাহেরখালী এলাকার বেড়িবাঁধে নিয়ে আরও কয়েকজনসহ তাকে তৃতীয় দফা গণধ”ণ করেন। বৃহস্পতিবার ভোরের দিকে ত’রুণীর মোবাইল ফোন ও নগদ ২ হাজার টাকা নিয়ে পা’লিয়ে যায় তারা। সকালে ত’রুণী প্রথমে সীতাকুণ্ড থানায় ও পরে মিরসরাই থানায় গিয়ে মা’মলা দা’য়ের করেন।

চট্টগ্রাম জে’লার পুলিশ সুপার এস এম রাশিদুল হক জানান, গণধ”ণের ঘটনায় বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে শুক্রবার রাত ১০টা পর্যন্ত অ’ভিযান চা’লানো হয়। এ সময় ছয়জনকে গ্রে’প্তার করা হয়। তাদের অন্য সহযোগীদের গ্রে’প্তারে অ’ভিযান চলছে। ত’রুণীর ডাক্তারি পরীক্ষা এবং চিকিৎসার ব্যবস্থা নিয়েছে পুলিশ। এ ছাড়া গ্রে’প্তার আ’সামিদের আজ শনিবার আ’দালতে হাজির করা হবে। সুত্রঃ আমাদের সময়

Check Also

স্ত্রীর অনুরোধে লাইফ সাপোর্টে থাকা স্বামীর থেকে সংগ্রহ করা হল শুক্রাণু

করোনা আক্রান্ত স্বামী হাসপাতালে ভর্তি। রয়েছেন লাইফ সাপোর্টে। কিন্তু স্ত্রী চান সন্তান ধারণ করতে। সেই …