Home / বিনোদন / কাজের সঙ্গে কখনো কম্প্রোমাইজ করিনি আর করবো না: তানহা তাসনিয়া

কাজের সঙ্গে কখনো কম্প্রোমাইজ করিনি আর করবো না: তানহা তাসনিয়া

এ প্রজন্মের গ্ল্যামার গার্ল ট্যালেন্ট তানহা তাসনিয়া। ‘ভোলা তো যায়না তারে’, ‘ধুমকেতু’, ‘ভালো থেকো’ সিনেমাগুলোতে অভিনয় করছেন তিনি। এতদিন সিনেমা নিয়ে থাকলেও বর্তমানে নাটকে বেশ ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন তিনি। ঈদকে সামনে রেখে একের পর এক নাটকের শুটিং করছেন এই অভিনেত্রী। প্রথমবারের মতো ছোটপর্দার দুই সুপারস্টার মোশাররফ করিম ও আফরান নিশোর সঙ্গে কাজ করলেন।সিনেমার ব্যস্ততা রেখে ছোটপর্দায় এখন পুরাদস্তুর ব্যস্ত অভিনেত্রী।

তার অভিনীত ঈদের নাটকের কাজগুলো নিয়ে মুখোমুখি হন ডেইলি বাংলাদেশ-এর। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন রুম্মান রয়।

আপনার কাজের ব্যস্ততা কি নিয়ে?
তানহা তাসনিয়া: আমি এখন ঈদের নাটকের কাজ নিয়ে ব্যস্ত রয়েছি। এবারের ঈদে কম করে হলেও সাত-আট’টা নাটক প্রচার হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আপাতত সেগুলোর কাজ নিয়েই এখন আমার ব্যস্ততা।

ঈদে আপনার কোন কোন নাটক প্রচার হতে পারে?
তানহা তাসনিয়া: এবারের ঈদে যে নাটকগুলো প্রচার হতে পারে সেগুলো হচ্ছে- তৌসিফ, ইরফান সাজ্জাদের বিপরীতে জাহিদ প্রীতমের ‘ভয় করোনা’, এফএস নাঈমের বিপরীতে আদিবাসী মিজানের ‘দাঁতাল’, আফরান নিশোর বিপরীতে ভিকি জাহিদের ‘কুয়াশা’, মোশাররফ করিমের বিপরীতে তাইফুর জাহান আশিকের ‘বউ ভীষণ পাওয়ারফুল’, শামীম হাসান সরকারের বিপরীতে চয়নিকা চৌধুরীর ‘বউ বদল’ এছাড়াও মিশু সাব্বিরের সঙ্গে একটাসহ আরো কিছু নাটক।

প্রথমবারের মতো টেলিভিশনের দুই সুপারস্টার মোশাররফ করিম ও আফরান নিশোর সঙ্গে কাজ করলেন। কাজের অভিজ্ঞতা কেমন ছিলো?
তানহা তাসনিয়া: মোশাররফ ভাই তো জিনিয়াস। সে নিজে একটা স্কুল। তার সঙ্গে কাজ করার অভিজ্ঞতা আমার খুব ভালো। ভাইয়ের কাছ থেকে আমি অনেক হেল্প পেয়েছি। ভাইয়া এই শটটা কিভাবে দিবো? এটা কিভাবে করবো? সব তার কাছ থেকে জেনে নিয়েছি। কি বলবো, সে আমাকে এতো হেল্প করেছে আমি খুব হ্যাপি। অভিনয়ের পাশাপাশি একজন পরিচালকের মতোই ভূমিকা রাখেন সে। খুব সুন্দর করে বুঝিয়ে দিতে পারে। তার সঙ্গে কাজ করে এটা বুঝতে পেরেছি, আমার কাজটা সহজ হয়ে যায়।

আর নিশো ভাইয়ের কথা কি বলবো! তার সঙ্গে কাজ করার সুযোগ হয়েছে ‘আই অ্যাম হ্যাপি ফর দ্যাট’। আমি তো অলওয়েজ নিশো ভাইয়ের বিগেস্ট ফ্যান। নিশো ভাইয়ের কাজ সব সময় দেখতাম। নিশো ভাইও অনেক হেল্পফুল অনেক সুন্দর করে আমরা কাজটা করেছি। আমি আসলে সবার কাছ থেকেই অনেক হেল্প পেয়েছি।

নাটকের ব্যস্ততার কারণে কি আপনাকে সিনেমায় কম দেখা যাবে?
তানহা তাসনিয়া: এ সময় তো সিনেমার ব্যস্ততা নেই বললেই চলে। সিনেমার ব্যস্ততা যেহেতু নেই তাই নাটকে ব্যস্ত থাকতে চাই; মোট কথা কাজে ব্যস্ত থাকতে চাই। আর আমি এটা বিলিভ করি না যে ফিল্ম করলে নাটক করা যাবে না বা নাটক করলে এটা করা যাবে না। এখন যুগই হচ্ছে ওটিটি প্ল্যাটফর্ম ইউটিউবের। তো আমাদেরকে সমান তালে এগিয়ে যেতে হবে। যুগের সঙ্গে আপডেট হতে হবে। এখন কাজটা যেখানেরই হোক না কেনো। বড়পর্দায় ভালো কাজ পেলে করবো, ছোটপর্দায় ভালো কাজ পেলে করবো। আমার কাছে ভালো ভালো কাজ করা ইম্পরট্যান্ট। এজন্যই আমি রেগুলার নাটক করছি।

ফিল্মে ব্যস্ততা নেই?
তানহা তাসনিয়া: না। এখন তো ফিল্মে ব্যস্ততা নেই। আমি যে রকম ফিল্মে কাজ করতে চাই সেরমক ফিল্মের অফার আসলে অবশ্যই করবো।

ওটিটি প্ল্যাটফর্মে কাজের ব্যাপারে আপনার কি ভাবনা?
তানহা তাসনিয়া: কাজের কোয়ালিটি গল্প সবকিছু মিলিয়ে ভালো হয়। আমার কাছে ম্যাটার করে না এটা কোন মাধ্যম। আমার দিক থেকে সবসময় ভালো কাজটাই প্রাধান্য। আলটিমেটলি আমার কাজটা দর্শক দেখতেছে। আমি দর্শকদের জন্য কাজটা করছি। সেটা যে মাধ্যমেই হোক দর্শকেরা তো দেখছেন।

আপনি তো এই মুহূর্তে একসঙ্গে অনেকগুলো নাটকের কাজ নিয়ে ব্যস্ত রয়েছেন। এতোগুলো কাজ করলে কাজের মান বজায় রাখা সম্ভব হয়?
তানহা তাসনিয়া: অবশ্যই। মানের সঙ্গে কোনো কম্প্রোমাইজ নাই। কারণ সব ডিরেক্টরই কাজগুলো করতেছে ঈদের জন্য; আর ঈদের কাজগুলো সবসময় স্পেশাল হয়। যখন যে কাজটা করতেছি সেই ক্যারেক্টারে থাকার চেষ্টা করতেছি। এমন নয় যে, এটা ভালো হয়েছে গতকালেরটা খারাপ ছিলো। যে দুদিন আমি যে নাটকের জন্য শিডিউল দিচ্ছি আমি সেই ক্যারেক্টারেই আছি। ঐ গল্পটাই মাথার মধ্যে ধারণ করতেছি। এখন যেহেতু নাটক করা শুরু করেছি আমাকে ভালো করতে হবে। আমাকে প্রুফ করতে হবে আমি সামনের দিকে কন্টিনিউ করতে চাই। সো আমি কখনো কোনো কাজের সঙ্গে কম্প্রোমাইজ করিনি আর করবো না। সেটা যে কোনো কাজেই হোক। যেকোনো প্ল্যাটফর্মই হোক।

সামনেই ঈদ। ঈদ নিয়ে কি পরিকল্পনা আর যেহেতু কোরবানির ঈদ গরুর মাংসের নানান পদ হয়।গরুর মাংসের কোন পদ আপনার খেতে পছন্দ?
তানহা তাসনিয়া: এবার তো লকডাউনে। অনলাইনে হয়তো গরু কেনা হবে। আমি তো আসলে কাজ নিয়েই ব্যস্ত থাকবো। আমরা যারা শিল্পী ঈদের আগে কাজের খুব চাপ যায়। তখন দেখা যায় ঈদের দিন আমরা চেষ্টা করি একটু রেস্ট নিতে। আর কোনো স্পেশাল প্ল্যান নেই। আর হ্যাঁ আমি গরুর মাংস খেতে খুব পছন্দ করি। এমনিতে তো খুব একটা খাওয়া হয় না। ঈদের সময় মায়ের হাতে গরুর কালা ভুনা খেতে খুব পছন্দ করি। কালা ভুনা খাওয়ার জন্য সবসময় অপেক্ষায় করি।

Check Also

যে কারণে মোশাররফ করিমের বিরুদ্ধে কুমিল্লায় মামলা

কুমিল্লার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে নাট্য অভিনেতা মোশাররফ করিমসহ চারজন ও একটি টেলিভিশন কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে …