Home / সারাদেশ / কলেজছাত্রকে তুলে নিয়ে হাতুড়ি ও রড দিয়ে পিটিয়ে রক্তাক্ত

কলেজছাত্রকে তুলে নিয়ে হাতুড়ি ও রড দিয়ে পিটিয়ে রক্তাক্ত

ঝালকাঠির রাজাপুরে সিফাতুল ইসলাম তামিম নামে এক কলেজছাত্রকে তুলে নিয়ে হাতুরি ও রড দিয়ে পিটিয়ে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে মো. সোহাগ হোসেন অপু নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে।

আহত তামিম উপজেলা সদরের বাগড়ি এলাকার মো. খলিলুর রহমানের ছেলে ও বরিশাল পলিটেকনিক ইনিস্টিটিউটের প্রথম বর্ষের ছাত্র। ঘটনার পর থেকে অপু পলাতক রয়েছেন।

আহত তামিম জানান, গত মঙ্গলবার উপজেলার বাইপাস মোড় এলাকায় দুই দল এসএসসি পরীক্ষার্থী সংঘর্ষে জড়ানোর পরিকল্পনা করছিল। তামিম বুঝতে পেরে দুই পক্ষকে ঝামেলায় না জড়ানোর পরামর্শ দেয়। পরে দুই পক্ষই ঘটনাস্থল থেকে চলে যায়। এই দুই পক্ষের মধ্যে এক পক্ষ নির্যাতনকারী অপু মৃধার সহযোগী।

এই ঘটনার জেরে বুধবার বিকেলে অপু ও তার দুই সহযোগী মিলে দুইটি মোটরসাইকেলে করে উপজেলা সদরের খেলার মাঠ থেকে তামিমকে তুলে নিয়ে আঙ্গারিয়া এলাকায় যায়। সেখানে আঙ্গারিয়া পঞ্চগ্রাম বালিকা নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের কক্ষে আটকে টানা দুই ঘণ্টা হাতুড়ি ও লোহার রড দিয়ে তামিমকে নির্মমভাবে পেটানো হয়।

খবর পেয়ে সন্ধ্যা ৭টার দিকে বিদ্যালয়ের বারান্দা থেকে গুরুতর আহতাবস্থায় স্বজনরা তামিমকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এনে ভর্তি করেন।

জানা যায়, অপু মৃধা এর আগেও একাধিকবার এমন নির্মম ঘটনা ঘটিয়েছে। তার বিরুদ্ধে ছাত্রলীগ নেতা সাইফুজ্জামান রুবেল হ'ত্যাচেষ্টা, সত্যনগর এলাকার অপর এক যুবককে হ'ত্যাচেষ্টা, পুলিশের কাছ থেকে হাতকড়াসহ পালিয়ে যাওয়া ও মাদকের মামলাসহ রাজাপুর ও ঝালকাঠি থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।

তামিমের বাবা মো. খলিলুর রহমান বলেন, আমার ছেলেকে নির্মমভাবে নির্যাতন করা হয়েছে। লিখিত অভিযোগ নিয়ে বুধবার রাত সাড়ে ১২ টা পর্যন্ত থানায় অবস্থান করেও মামলা করতে পারিনি। এ ঘটনার বিচার চাই।

রাজাপুর থানার ওসি (তদন্ত) মো. হালিম তালুকদার বলেন, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Check Also

প্রেমে বাধা, হত্যার পর স্বামীর লাশ নিয়ে বাড়ি ফেরেন স্ত্রী

স্বামীর হার্ট অ্যাটাকে মৃত্যু হয়েছে বলে লা'শ বাড়ি নিয়ে আসেন স্ত্রী। সঙ্গে ছিলেন শাশুড়ি-দাদি শাশুড়িও। …