Home / সারাদেশ / এইমাত্র পাওয়াঃ কঠোর লকডাউনে সাধারণ ছুটি নিয়ে সুখবর

এইমাত্র পাওয়াঃ কঠোর লকডাউনে সাধারণ ছুটি নিয়ে সুখবর

মহামারি করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) প্রতিরোধে দেশব্যাপী সরকার ঘোষিত তিনদিনের সীমিত লকডাউন আজ শুরু হয়েছে। এ সময়ে পণ্যবাহী গাড়ি ও রিকশা ছাড়া সব ধরনের গণপরিবহন বন্ধ থাকবে।

এ লকডাউন আগামী বৃহস্পতিবার থেকে আরো কঠোর হবে। আর লকডাউন আরো কঠোর হলে সে সময় থেকে সাধারণ ছুটির কথা ভাবছে সরকার।

সম্প্রতি করোনাসংক্রান্ত জাতীয় পরামর্শক কমিটির সুপারিশের আগে থেকেই কঠোর বিধি-নিষেধ বা লকডাউনের বিষয়টি নিয়ে সরকারের নীতি-নির্ধারকদের ভেতরে আলোচনা হচ্ছিল।

তবে অর্থবছরের শেষ, জাতীয় সংসদ অধিবেশন চলা ও উত্তরবঙ্গের আম মৌসুমসহ সার্বিক অর্থনীতির কথা চিন্তা করে কঠোর সিদ্ধান্তে যেতে দ্বিধান্বিত ছিল সরকার। এরপরও ঘন বসতির ঢাকাকে বাঁচাতে আশপাশের সাতটি জেলায় লকডাউন দিয়ে সরকার পরীক্ষামূলক সতর্ক অবস্থা নিয়েছিল। সাত জেলার লকডাউন কার্যত কোনো ফল দেয়নি। উল্টো সংক্রমণ ও মৃত্যু বেড়েছে।

এ পরিস্থিতিতে জাতীয় পরামর্শক কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী শাটডাউনের দিকেই যাচ্ছে সরকার। তবে কিছু ক্ষেত্রে ছাড় দিয়ে সেটা বাস্তবায়নের পরিকল্পনায় এগোচ্ছে সরকার।

সরকারের নীতি-নির্ধারণী মহলের একাধিক উচ্চপর্যায়ের সূত্রের সঙ্গে কথা বলে সাধারণ ছুটির চিন্তার কথা জানা গেছে। তবে সরকারি প্রজ্ঞাপনে ঠিক ‘সাধারণ ছুটি’ ঘোষণা করা হবে কি না, তা নিয়ে এখনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি।

এদিকে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করলেও দেশ চালাতে সরকারি অনেক গুরুত্বপূর্ণ দফতর খোলা রাখতে হয়। এসব জায়গায় নিয়োজিত সরকারি কর্মচারীদের সাধারণ ছুটির মধ্যে আলাদা বেতন-ভাতাও দিতে হয়।

আজ প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিত্বে জাতীয় সংসদে মন্ত্রিসভার বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। বৈঠক শেষে বিকেলে মন্ত্রিপরিষদসচিব সচিবালয়ে মন্ত্রিসভা বৈঠকের বিষয়ে তথ্য জানাবেন। সে সময় আগামী বৃহস্পতিবারের কঠোর লকডাউনের বিষয়েও কিছু ইঙ্গিত দিতে পারেন।

Check Also

গণপরিবহন চালুর বিষয়ে আসছে নতুন সিদ্ধান্ত

বিদ্যমান করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতি এবং স্বাস্থ্য অধিদফতরের সুপারিশের পরিপ্রেক্ষিতে চলমান বিধিনিষেধ আরো বাড়ানো হতে পারে। …