Home / এক্সক্লুসিভ / উপবৃত্তির টাকায় বিষপান করে প্রেমিক-প্রেমিকা

উপবৃত্তির টাকায় বিষপান করে প্রেমিক-প্রেমিকা

বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলায় পরিবার থেকে বিয়ের স্বীকৃতি না পাওয়ায় প্রেমিক-প্রেমিকা আত্মহ'ত্যা করতে একসাথে বিষপান করে। ঘটনার চারদিন পর বৃহস্পতিবার গভীর রাতে শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় প্রেমিকা পূজা বৈরাগী (১৪)।

পূজা উপজেলার রত্নাপুর ইউনিয়নের মোহনকাঠী গ্রামের হীরা লাল বৈরাগীর মেয়ে ও মোহনকাঠী স্কুল এ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণির ছাত্রী। মেডিকেলে চিকিৎসাধীন আছে প্রেমিক প্রকাশ বিশ্বাস (১৭)। প্রকাশ উপজেলার রত্নাপুর ইউনিয়নের বারপাইকা গ্রামের পরিমল বিশ্বাসের ছেলে। দু’জনকে বৃহস্পতিবার রাতে শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

মেডিকেলের মেডিসিন ইউনিট-৩ এর চিকিৎসাধীন প্রকাশ বিশ্বাস বলেন, পূজার সাথে তার দীর্ঘদিনের প্রেমের সম্পর্ক। পূজা তাকে বিয়ের জন্য চাপ দিচ্ছিল। কিন্তু পূজা ও তার পরিবার তাদের দুজনের বয়সের কারণে বিয়েতে রাজী হয়নি। কিন্তু পূজা আমাকে বিয়ের জন্য পীড়াপীড়ি করতে থাকে।

তিনি বলেন, সর্বশেষ গত ৯ মার্চ পূজা স্কুল থেকে উপবৃত্তির টাকা উত্তোলন করে। এরপর আমাকে বিয়ে করতে বলে। কিন্তু পূজার বয়স কম হাওয়ায় আমি রাজী হইনি। এরপর পূজা উপবৃত্তির টাকা দিয়ে বিষ কেনে। আমরা দু’জন বরিশালের উজিরপুর উপজেলার ভাউধর গ্রামে আমার মামা নিহার বাড়ৈর বাড়িতে যাই। সেখানে বেলা দেড়টার দিকে প্রথমে বিষপান করে পূজা। এরপর আমিও বিষপান করি। ওই পরিবারের সদস্যরা আমাদের উদ্ধার করে আগৈলঝাড়া হাসপাতালে ভর্তি করে।

মেডিকেলে দায়িত্বে থাকা এসআই নাজমুল হুদা বলেন, বৃহস্পতিবার গভীর রাতে মারা যাওয়া পূজার মরদেহ লা'শঘরে রাখা হয়েছে। প্রকাশ চিকিৎসাধীন রয়েছে।

আগৈলঝাড়া হাসপাতালের চিকিৎসক ও হাসপাতাল প্রধান ডা. বখতিয়ার আল মামুন জানান, চারদিন চিকিৎসাধীন প্রকাশ ও পূজার অবস্থার অবনতি হওয়ায় বৃহস্পতিবার তাদেরকে বরিশাল মেডিকেলে প্রেরণ করা হয়।

Check Also

অতিরিক্ত যৌনতায় প্রাণ গেলো যুবকের!

স্বাস্থ্যবিদরা বলে থাকেন, শরীর সুস্থ রাখতে যৌ'নতার বিকল্প না কি আর হয় না! শারীরিক স'ঙ্গমে …