Home / সারাদেশ / অর্থের অভাবে মাংস কেনার সামর্থ্য না থাকায় কবর থেকে লাশ তুলে রান্না করে খেত দুই ভাই !

অর্থের অভাবে মাংস কেনার সামর্থ্য না থাকায় কবর থেকে লাশ তুলে রান্না করে খেত দুই ভাই !

পা’ঞ্জাবের(পাকিস্তানের) ভা’ক্কার নামক একটি গ্রামে একজন যু’বতী মা’রা যাবার পর স্বাভাবিক নিয়মেই দা’ফন করা। ধ’র্মীয় রীতি অ’নুযায়ী পরের দিন ভোর বেলা আবারো ক’ব’রে উপস্থিত হন মৃ’তের স্ব’জনরা।

উ’পস্থিত হয়েই তাদের আ’ক্কেলগুড়ুম! ক’ব’র খোঁড়া!! লা’শ নেই অবশ্য এই ক’ব’রস্থানে এমন ঘটনা নতুন নয়। শহুরে প’রিবার অন্যের মতন নিরবে মেনে নেয় নি ঘ’টনা। তারা সোজা পু’লি’শের কাছে যান। প’রিবারের

অ’ভিযোগের ভিত্তিতে তারা অ’ভিযান শুরু করে। অ’নুসন্ধান করতে করতে তারা একটি দরিদ্র কৃষক এর বা’ড়িতে পৌঁছে যায় সে’খানেই তারা পেয়ে যান আ’সামী! বেশি সময় লা’গেনি গতরাতের চুরি যাওয়া যু’ব’তীর লা’শ পেতে!

লা’শ’টি ইতোমধ্যেই ক্ষ’তবিক্ষত করা হয়েছে! পু’লি’শ লা’শ খে’কোদের বাসায় চিরুনি অ’ভিযান দেয়! বেরিয়ে আসে ২৫০ টি সাদা কাফন!! ক’ব’র খোঁড়ার যন্ত্রপাতি লা’শ খে’কোদের কে

প্রা’থমিক জিজ্ঞেসাবাদে তারা যু’ব’তীর লা’শটি বিকৃতর কারন জানায়। তারা যু’ব’তীর লা’শের কিছু অংশের মাংস চুলায় চড়িয়েছে তরকারি রা’ন্নার জন্য! পু’লি’শ রা’ন্নাঘরে চুলায় টগবগ করতে থাকা মাংসের ত’রকারি নামিয়ে

এনে থা’নায় নিয়ে যায় লা’শ খেকো দু’ভাইয়ের নামে কুকুর হ’ত্যা করে মাংস খাওয়া, নিজ বো’নকে হ’ত্যা সহ কমপক্ষে ২৫০টি লা’শ চুরির মা’ম’লা হয়।দু ভাই জানিয়েছে তারা মাংস কিনে খাওয়া মতন সা’র্মথ্য না থাকায় এ পথ অ’বলম্বন করেছে!

আরও পড়ুনঃ মডেল-অভিনেত্রী সাদিয়া ইসলাম মৌ অভিনয়ে খুব বেশি সরব নন। মাঝে মধ্যে কাজ করেন তা-ও বেছে বেছে! অভিনেতা আনিসুর রহমান মিলন ও অভিনেত্রী সাদিয়া ইসলাম মৌ একসঙ্গে বেশি

নাটকে অভিনয় করেননি। এবার একক নাটক ‘ঘোরে’ অভিনয় করছেন এই দুই জন। দীর্ঘ চার বছর পর এই নাটকে একসঙ্গে কাজ করছেন তারা।নাটকের গল্পে দেখা যাবে, একটি ফ্যাশন হাউজের কর্ণধার মৌ।

কম বয়েসি এক ছেলের প্রেমে পড়েন তিনি। অর্থাৎ অসম প্রেমের গল্প নিয়ে এগিয়েছে এ নাটকের কাহিনি। কাজের অভিজ্ঞতা জানিয়ে মিলন বলেন, ‘চিত্রনাট্য পাঠানোর পর মৌ আপা নানা পরামর্শ দিয়েছেন।

কাজটি নিয়ে খুবই উৎসাহী ছিলেন তিনি। গল্পের চরিত্রের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার জন্য আলাদা চেষ্টা করেছেন তিনি। কস্টিউম নিয়েও ভেবেছেন।’দীর্ঘদিন পর একসঙ্গে কাজ করে মৌকে নিয়ে মুগ্ধতা প্রকাশ করেছেন মিলন।

এ অভিনেতা বলেন, ‘মৌ আপা যেভাবে কাজে সহযোগিতা করেছেন, এতে আমি মুগ্ধ। মৌ আপা অনেক বেশি কো–অপারেটিভ। আমার মনে হয়েছে, বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয়ের জন্য মৌ আপার মতো অভিনেত্রীকে দরকার। তিনি নিয়মিত অভিনয় করলে আমাদের নাটক আরও সমৃদ্ধ হবে।’

এরই মধ্যে নাটকটির দুইদিনের শুটিং শেষ হয়েছে। আরো একদিনের শুটিং বাকি রয়েছে। মৌ-মিলন ছাড়াও এ নাটকে অভিনয় করছেন—জোভান আহমেদ। খুব শিগগির বেসরকারি একটি টিভি চ্যানেলে নাটকটি প্রচার হবে।

Check Also

স্ত্রীর অনুরোধে লাইফ সাপোর্টে থাকা স্বামীর থেকে সংগ্রহ করা হল শুক্রাণু

করোনা আক্রান্ত স্বামী হাসপাতালে ভর্তি। রয়েছেন লাইফ সাপোর্টে। কিন্তু স্ত্রী চান সন্তান ধারণ করতে। সেই …